এবার হত্যার বদলে হত্যার হুমকি দিলেন নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা। গতকাল মঙ্গলবার দুপুর ২টায় ফেসবুক লাইভে এসে এমন হুমকি দেন তিনি। এর আগে দুপুর ১২টায় ফেসবুক লাইভে এসে পুলিশের হাতে লাঞ্ছিত হওয়ার অভিযোগ করেন কাদের মির্জা। গতকালও তিনি তার বড় ভাই আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের পরিবারকে নিয়ে বিষোদ্গার করেন।

ফেসবুক লাইভে কাদের মির্জা বলেন, 'আমি খবর পেয়েছি- এসপি, এএসপি ও কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি বসে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন আমার দলের গ্রেপ্তারকৃত নেতা সিরাজপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নাজিম উদ্দিন মিকনকে ক্রসফায়ারের দিয়ে দেবেন। এ ধরনের ঘটনা কোম্পানীগঞ্জে কোনোদিনও ঘটতে দেই নাই। যদি এ ধরনের কোনো ঘটনা ঘটে, তাহলে কোম্পানীগঞ্জে রক্তের হলি খেলা চলবে। কারও সন্তান রক্ষা পাবে না। হত্যার বদলে হত্যা হবে। কাউকে ছেড়ে দেওয়া হবে না।'

তিনি বলেন, 'মাদক সম্রাট জনতা ব্যাংকের তিন কোটি টাকা লুটপাটকারী ফখরুল ইসলাম রাহাত, কবিরহাটের ব্যাংক ডাকাত খিজির হায়াত, সাংবাদিক মুজাক্কির ও সিএনজি অটোরিকশাচালক আলা উদ্দিনের হত্যাকারী ভূমিদস্যু বাদল কীভাবে থানায় যায়। কীভাবে প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়ায়, আমি প্রশাসনের কাছে জানতে চাই? সন্ত্রাসীরা আমার ছেলের ওপর হামলা করেছে। আমার বাড়িতে বোমা হামলা করেছে। এ ঘটনায় একজনকেও গ্রেপ্তার করেনি পুলিশ। অথচ আমার পৌরসভা কার্যালয়ে ইফতার নিয়ে আমার অনুসারীরা ঢুকতে পারে না। তাদের গ্রেপ্তার করে নিয়ে যাওয়া হয়।'

কাদের মির্জা বলেন, 'আজকের এ আওয়ামী লীগ অপশক্তি। এ আওয়ামী লীগ অস্ত্রবাজদের আওয়ামী লীগ। এ আওয়ামী লীগ টেন্ডারবাজদের আওয়ামী লীগ। আমাদের মতো ৪৭ বছরের ত্যাগী কর্মীদের আজকে শুধু এখানে নয়, বাংলাদেশের কোথায়ও ঠাঁই নেই। অপরাজনীতির হোতারা আওয়ামী লীগকে নিয়ন্ত্রণ করছে।'

বসুরহাট পৌরসভার মেয়র বলেন, 'সেতুমন্ত্রীর স্ত্রী ইশরাতুন্নেছা কাদেরের আত্মীয় সচিব বেলায়েতের নির্দেশে আমার ওপর অত্যাচার-নির্যাতন চলছে। সড়ক ও সেতু মন্ত্রণালয়ের অধিকাংশ ঠিকাদার বিএনপি করে। সেখান থেকে মাসোয়ারা তুলে সে টাকাকে তিন ভাগে ভাগ করে। এক ভাগ চলে যায় লন্ডনে তারেক জিয়ার কাছে। এক ভাগ মন্ত্রীর স্ত্রীর কাছে। আরেক ভাগ চলে যায় সচিব বেলায়েতসহ সড়ক ও সেতু বিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কাছে। মন্ত্রীর স্ত্রীর দেশ-বিদেশে হাজার হাজার কোটি টাকা আছে, গাড়িবাড়ি আছে। সব হিসাব আমার কাছে আছে। সেটা আমি যথাসময়ে জায়গামতো পাঠাবো।'


মন্তব্য করুন