পৃথিবীর সর্বোচ্চ পর্বতশৃঙ্গ মাউন্ট এভারেস্টেও পৌঁছে গেছে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস। এ নিয়ে রীতিমতো ভীতি ছড়িয়ে পড়েছে। তবে সেখানে করোনার সংক্রমণ যাতে বিস্তৃত না হয়, সেজন্য এভারেস্ট চূড়ায় 'বিভাজন রেখা' তৈরির ঘোষণা দিয়েছে চীন। নেপালের দিক থেকে এভারেস্টে আরোহণকারীদের কাছ থেকে যাতে সংক্রমণের বিস্তার না ঘটে, সেই জন্যই এই বিশেষ ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

ভারতের মতো নেপালও করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে পর্যুদস্ত। দেশটিতে আক্রান্ত-মৃত্যু হুহু করে বাড়ছে। এ নিয়ে চিন্তায় পড়েছে চীন। নেপালের দিক থেকে এভারেস্টের পথে সংক্রমণ যাতে ঢুকে না পড়ে, সেই কারণেই বিভাজন রেখা তৈরির ঘোষণা দিয়েছে বেইজিং।

এভারেস্টের দক্ষিণ ঢাল রয়েছে নেপালের দিকে। উত্তর ঢাল চীনের দিকে। চীনের দিক থেকে এ বছর ২১ জন এভারেস্ট অভিযান করছে। তারা এপ্রিল মাস থেকে তিব্বতে কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন। এ দিকে নেপালের বেসক্যাম্পেও এবারে অভিযাত্রীর ভিড় রয়েছে। তিব্বতের দিক থেকে সংক্রমণের খবর না এলেও নেপালের দিক থেকে ৩০ জন আক্রান্ত হয়েছেন। সাধারণত শিখর জয়ের পথে এই দুই ঢালের পর্বতারোহীদের সাক্ষাতের সম্ভাবনা থাকে। সেই সাক্ষাতের ফলে যাতে করোনা সংক্রমণ না হয়, সেই কারণেই এই বিভাজন রেখা তৈরি করা হচ্ছে। সূত্র :সিনহুয়া।

মন্তব্য করুন