রংপুরের পীরগঞ্জে সাম্প্রদায়িক হামলা মামলায় আরও দু'জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তারা হলো আব্দুল্লাহ আল মামুন ও ওমর ফারুক ওরফে টনেট। তারা ছাত্রশিবির কর্মী বলে পুলিশ জানায়। এ নিয়ে সহিংসতার মামলায় গ্রেপ্তার হয়েছে ৬৬ জন।

রংপুর পুলিশ সুপার বিপ্লব কুমার সরকার জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রোববার রাতে ওই দু'জনকে তাদের গ্রামের বাড়ি গাইবান্ধার সাদুল্লাপুর থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। ঘটনার রাতে তারা মোটরসাইকেলে সাদুল্লাপুর থেকে পীরগঞ্জে এসে পেট্রোল নিয়ে হামলায় অংশ নেন। তাদের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করলে ঘটনার বিষয়ে আরও গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া যেতে পারে। এজন্য আদালতে তোলা হবে।

এ ছাড়া হামলার ঘটনায় আরও ১৩ জনকে রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ। সোমবার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক ফজলে এলাহি খান তাদের তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। কোর্ট জিআরও সহিদুল ইসলাম এ তথ্য জানান।

চৌমুহনীতে হামলায় জামায়াত নেতাসহ গ্রেপ্তার ১১ :নোয়াখালীর চৌমুহনীতে সাম্প্রদায়িক হামলার ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে সেনবাগ উপজেলার বীজবাগ ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান জামায়াত নেতা হারুন অর রশীদ, স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতাসহ আরও ১১ জনকে গ্রেপ্তার করেছে ডিবি ও থানা পুলিশ। গত ২৪ ঘণ্টায় বেগমগঞ্জ সদর, চাটখিল ও সেনবাগ উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। গতকাল নোয়াখালী পুলিশ সুপার কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান পুলিশ সুপার তৌহিদুল ইসলাম।

চট্টগ্রামে হামলায় ১৫ আসামি রিমান্ডে :চট্টগ্রামে পূজামণ্ডপে হামলা মামলায় ১৫ আসামির এক দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। গতকাল চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট হোসেন মোহাম্মদ রেজা শুনানি শেষে এ আদেশ দেন। নগর পুলিশের অতিরিক্ত উপকমিশনার (প্রসিকিউশন) কামরুল হাসান বলেন, জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ১৫ আসামিকে সাত দিন করে রিমান্ডের আবেদন করেছিল কোতোয়ালি থানা পুলিশ।

(প্রতিবেদনে তথ্য দিয়েছেন সংশ্নিষ্ট এলাকার ব্যুরো, অফিস ও প্রতিনিধিরা)

মন্তব্য করুন