প্রাগৈতিহাসিক টেট্রাপোডোফিস নামের প্রাণী থেকে বর্তমান সাপ এসেছে বলে মনে করা হয়। বিলুপ্ত ওই প্রাণীটি সাপের আদিম প্রজাতি ছিল এবং এদের চারটি পা ছিল। বিচরণ করত প্রায় ১১ কোটি বছর আগে ক্রেটাসিয়াস যুগে। তবে এ ধারণা পাল্টে দিয়েছে নতুন এক গবেষণা। টেট্রাপোডোফিস এক ধরনের গিরগিটি ছিল বলে দাবি করেছেন কানাডার ইউনিভার্সিটি অব আলবার্টার বিজ্ঞানীরা। ২০১৫ সালে ব্রাজিলে পাওয়া একটি ফসিল বা জীবাশ্ম নিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে এ সিদ্ধান্তে উপনীত হওয়ার কথা জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক জীবাশ্মবিদ মাইকেল ক্যাডওয়েল। তিনি বলেন, টেট্রাপোডোফিস প্রকৃতপক্ষে বহু আগে বিলুপ্ত সামুদ্রিক গিরগিটি ডলিচসোরাসের একটি প্রজাতি। মেরুদণ্ডী প্রাণী টেট্রাপোডোফিস সাপের আদিমতম প্রজাতি ছিল। কালের বিবর্তনে পা হারিয়ে এরা বর্তমান সাপে রূপ নিয়েছে। আশা ছিল, এক সময় এমন সাপের ফসিল পাওয়া যাবে, যার চারটি পা থাকবে। তার মাধ্যমেই প্রমাণ করা যাবে- সাপের পূর্বপ্রজন্ম পা-যুক্ত ছিল। কিন্তু সে ধারণা ভুল প্রমাণিত হয়েছে বলে দাবি করেছেন অধ্যাপক ক্যাডওয়েল। তিনি বলেন, 'সাপের বিবর্তন নিয়ে বহু প্রশ্ন আছে। এগুলোর সমাধান হতে পারে যদি চার পায়ের একটি সাপের ফসিল পাওয়া যায়। কিন্তু বিষয়টি বাস্তবসম্মত নয়।' সূত্র :সায়েন্স নিউজ।

মন্তব্য করুন