ব রি শা লে র টু ক রো খ ব র

প্রকাশ: ১০ জুন ২০১৪

মেহেন্দীগঞ্জে বখাটে দুই তরুণের দণ্ড
ম বরিশাল ব্যুরো
মেহেন্দীগঞ্জে বিদ্যালয় ছাত্রীকে হয়রানির অভিযোগে দুই তরুণকে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে এক মাসের কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। সোমবার সকালে এ দণ্ড দেন ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক ও ইউএনও খালিদ মো. জাকি। দণ্ডিতরা হচ্ছে সাদেকপুর গ্রামের কামাল গাজীর ছেলে কাওছার গাজী ও খরকি গ্রামের আবুল পালোয়ানের ছেলে রাকিব হোসেন পালোয়ান। ইউএনও খালিদ মো. জাকি জানান, সাদেকপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণীর ছাত্রী শাহনাজকে দীর্ঘদিন উত্ত্যক্ত করে আসছিল দণ্ডিত দুই তরুণ। প্রতিবাদ করা হলে বখাটেরা ছাত্রীর পরিবারের সদস্যদের হুমকি-ধমকি দেয়।
বরিশালে স্বামী-স্ত্রীকে কুপিয়ে জখম
শ্বশুরবাড়ির সম্পত্তির ভাগবণ্টন নিয়ে বিরোধের জের ধরে সদর উপজেলার চরমোনই ইউনিয়নের বুখাইনগর গ্রামে স্বামী-স্ত্রীকে কুপিয়ে জখম করেছে প্রতিপক্ষ। রোববার এ হামলার পর আহত স্বামী-স্ত্রীকে বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহতরা হচ্ছেন সাবেক ইউপি সদস্য মনোয়ার হোসেন জুয়েল ও তার স্ত্রী নাছিমা আক্তার। আহত মনোয়ার হোসেন জুয়েল জানান, স্ত্রী নাছিমা আক্তারকে পৈতৃক সূত্রে প্রাপ্ত সম্পত্তি থেকে বঞ্চিত করে আসছে তার ভাইয়েরা। রোববার পৈতৃক সম্পত্তি স'মিলের ভাগের টাকা চাইতে যান নাছিমা আক্তার। এ সময় বাদানুবাদের এক পর্যায়ে চুন্নু সিকদার, মেহেদি সিকদার, সাইফুল সিকদারসহ ৫-৭ জন জুয়েল ও নাছিমাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম করেছে। ওসি শাখাওয়াত হোসেন বলেন, জমি নিয়ে বিরোধের জেরে এ হামলার ঘটনা ঘটেছে।
উজিরপুরে ৪ গাঁজাসেবীর দণ্ড
বরিশালের উজিরপুরে ৪ মাদক সেবনকারীকে ১ মাস করে বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উজিরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সোহরাব হোসেন। রোববার সন্ধ্যায় উপজেলার বামরাইল গ্রামে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে গাঁজা ব্যবসায়ী স্বপন সরদারের বাড়ি থেকে গাঁজা সেবনরত অবস্থায় ছালাম মৃধা, কাইউম সরদার, রাসেল রাঢ়ী ও নজরুল খলিফাকে উজিরপুর থানা পুলিশের টহল দল গ্রেফতার করে। পরে তাদের ভ্রাম্যমাণ আদালতে সোপর্দ করা হলে আদালত ৪ জনের প্রত্যেককে ১ মাস করে বিনাশ্রম কারাদণ্ডে দণ্ডিত করেন। সোমবার দণ্ডিতদের জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।
বরিশালে ৭০ জামায়াত নেতাকর্মীকে অব্যাহতি
বরিশালে পুলিশের ওপর হামলার অভিযোগে দায়েরকৃত মামলায় মহানগর জামায়াতের আমিরসহ ৭০ নেতাকর্মীকে অভিযোগ থেকে অব্যাহতি দিয়েছে পুলিশ। ওই মামলায় এক শিবির কর্মীকে অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র দেওয়া হয়েছে। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা কোতোয়ালি থানার উপপরিদর্শক গোলাম কবির রোববার আদালতে এ তদন্ত প্রতিবেদন দিয়েছেন। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, ২০১২ সালের ৬ নভেম্বর নগরীর চকেরপুল এলাকায় জামায়াত-শিবিরের মিছিলে বাধা দেওয়ায় পুলিশের ওপর হামলার অভিযোগে বিস্ফোরক দ্রব্য আইনে একটি মামলা করা হয়। মামলায় মহানগর জামায়াতের আমির অ্যাডভোকেট মোয়াজ্জেম হোসেন হেলালসহ ৭১ জনের নাম উল্লেখ এবং ১০০ থেকে ১৫০ জনকে অজ্ঞাতনামা আসামি করা হয়।