নোয়াখালীতে অপহরণকারী আটক

প্রকাশ: ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৬

নোয়াখালী সংবাদদাতা

বাড়িতে ঢুকে অপহরণে ব্যর্থ হয়ে গুলি করার প্রস্তুতিকালে স্থানীয়রা এক অপহরণকারীকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছে। আটক ওই অপহরণকারী লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ উপজেলার কুণ্ডিশপাড়া গ্রামের বেলাল হোসেন। এ সময় তার কাছ থেকে ২ রাউন্ড গুলি ও ২টি ককটেল বোমা উদ্ধার করা হয়েছে। শুক্রবার চাটখিল উপজেলার রামনারায়ণপুর ইউনিয়নের গোমাতলী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।
রামগঞ্জের গণেশামপুর গ্রামের আলমগীরের নেতৃত্বে ৬-৭ জন অস্ত্রধারী যুবক ২ ফেব্রুয়ারি চাটখিল উপজেলার ঘোমাতলী গ্রামের সিরাজ হোসেনের ছেলে আওলাদ সুমনকে রামনারায়ণপুর ইউনিয়নের নেসারমারপোলের কাছ থেকে অপহরণ করে লক্ষ্মীপুরের গণেশামপুর গ্রামের বাড়িতে আটক রেখে নির্যাতন চালায়। এ সময় তারা সুমনের পরিবারের কাছে ৫০ হাজার টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। সুমন জানান, এ ঘটনার পর তার পরিবার নগদ ৩০ হাজার টাকা ও তার ব্যবহৃত ৩৫ হাজার টাকা দামের মোবাইল ফোন দিলে তার মুক্তি মেলে। এ ঘটনার পর শুক্রবার শামীম ও বেলালের নেতৃত্বে ৪-৫ জন সন্ত্রাসী সুমনের ঘোমাতলী বাড়িতে অপহরণের জন্য প্রবেশ করে।
থানার ওসি মো. নাসিম উদ্দিন পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থল থেকেই বেলালকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। এ ঘটনায় আওলাদ হোসেন সুমন ৫ জনের নাম উলেল্গখ এবং ১৫-১৬ জনকে অজ্ঞাত আসামি করে থানায় অপহরণ মামলা করেন। আটক বেলাল ও তার সহযোগীরা পেশাদার সন্ত্রাসী।