বাল্যবিয়ে থেকে রক্ষা পেল সোনারগাঁয়ের স্কুলছাত্রী স্বর্ণা

প্রকাশ: ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৬

সোনারগাঁ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি

স্থানীয় প্রশাসনের হস্তক্ষেপে শুক্রবার বাল্যবিয়ে থেকে রক্ষা পেল সোনারগাঁয়ের স্কুলছাত্রী স্বর্ণা আক্তার। স্বর্ণা বৈদ্যেরবাজার ইউনিয়নের দামোদরদী-আনন্দবাজার গ্রামের দ্বীন ইসলামের মেয়ে। সে স্থানীয় হাজী মতিউর রহমান সরকার উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণীর ছাত্রী।
স্বর্ণা আক্তারকে তার মতামতের বিরুদ্ধে বাবা দ্বীন ইসলাম নোয়াগাঁও গ্রামের ব্যবসায়ী বিল্লাল হোসেনের সঙ্গে বিয়ে ঠিক করেন। বিষয়টি স্বর্ণা হাজী মতিউর রহমান সরকার উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাকসুদুর রহমান সরকারকে জানালে তিনি লিখিতভাবে সোনারগাঁয়ের ইউএনও আবু নাছের ভূঞাকে জানান।
পরে ইউএনও তাৎক্ষণিক এ বিয়ে বন্ধ করার জন্য সোনারগাঁ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) এসএম জাকারিয়া ও সোনারগাঁ থানার ওসি শাহ মো. মঞ্জুর কাদের পিপিএমকে নির্দেশ দেন। পরে জাকারিয়ার নেতৃত্বে পুলিশ অভিযান চালিয়ে স্বর্ণা আক্তারের বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা বন্ধ করে দেয়। দ্বীন ইসলাম একাধিক স্থানে গিয়ে গোপনে মেয়েকে বিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করলে সেসব স্থানেও পুলিশ হানা দিলে বিয়ে পণ্ড হয়ে যায়।
বাল্যবিয়ে থেকে রক্ষা পাওয়া স্বর্ণা আক্তার জানায়, এখনও তার বিয়ের বয়স হয়নি। সে আরও পড়াশোনা করতে চায়।