রূপগঞ্জ ও মুক্তাগাছায় ২০ জন আহত

প্রকাশ: ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৬      

সমকাল ডেস্ক

হামলা-সংঘর্ষে নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ ও ময়মনসিংহের মুক্তাগাছায় ২০ জন আহত হয়েছেন। প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর :
রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) :রূপগঞ্জে পৃথক সংঘর্ষ ও হামলায় ১৬ জন আহত হয়েছেন। উপজেলার কাঞ্চন পৌরসভার করটিয়া এলাকার মনু মিয়ার সঙ্গে একই এলাকার আলম মিয়ার ৯ শতাংশ জমি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছে। শুক্রবার দুপুরে জমি মেপে সীমানা করতে যান মনু মিয়াসহ তার পরিবারের লোকজন। এ সময় মনু মিয়ার পরিবারের সঙ্গে আলম মিয়ার পরিবারের লোকজনের বাকবিতণ্ডা হয়। এক পর্যায়ে আলম মিয়ার পরিবারের লোকজন ধারালো অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে মনু মিয়ার লোকজনের ওপর হামলা চালালে দু'পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বেঁধে যায়। এতে উভয় পক্ষের নারীসহ ১২ জন আহত হন। এ সময় এক পক্ষ আরেক পক্ষের ঘরবাড়িতে হামলা চালিয়ে ভাংচুর ও লুটপাট চালায়। রূপগঞ্জ থানার ওসি মাহমুদুল ইসলাম বলেন, তদন্ত সাপেক্ষে উভয় পক্ষের লোকজনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
অন্যদিকে উপজেলার বাগলা পুটিনা এলাকার আয়েশা খাতুন নামে এক নারী পৈতৃক সূত্রে পাওয়া জমিতে শুক্রবার সকালে ঘর নির্মাণ করতে যান। এ সময় আয়েশা খাতুনের ভাই সালাউদ্দিন তাতে বাধা দেন। এক পর্যায়ে তাদের মধ্যে বাকবিতণ্ডা হয়। পরে সালাউদ্দিনসহ তার লোকজন আয়েশা খাতুন, রাহিমা বেগম, নাজমা আক্তার ও আসাম উদ্দিনকে লাঠিপেটা ও কুপিয়ে জখম করে গুরুতর আহত করে। এ সময় সালাউদ্দিনের লোকজন আয়েশা খাতুনের বাড়িঘরে হামলা চালিয়ে ভাংচুর ও লুটপাট করে। আহত আয়েশা খাতুন জানান, দুই মাস আগেও সালাউদ্দিন তার বাড়িঘরে হামলা চালিয়ে পরিবারের লোকজনকে পিটিয়ে আহত করে ভাংচুর ও লুটপাট চালায়। এ বিষয়ে রূপগঞ্জ থানার ওসি মাহমুদুল ইসলাম বলেন, অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
মুক্তাগাছা (ময়মনসিংহ) :মুক্তাগাছা শহরের মধ্যমহিস্যার মোড় এলাকার ইউনুছ মাস্টারের সঙ্গে একই এলাকার জ্ঞানেন্দ্র চন্দ পালের জমির সীমানা নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। শুক্রবার দুপুরে জ্ঞানেন্দ্র চন্দ্র পালের লোকজন ইউনুছ মাস্টারের বাড়িতে হামলা চালিয়ে ভাংচুর ও লুটপাট করে। তাদের বাধা দিলে ইউনুছ মাস্টারের স্ত্রী খোদেজা আক্তার, ছেলে উজ্জ্বল, জোবায়ের ও প্রতিপক্ষের জুয়েল মিয়া আহত হন। উজ্জ্বল ও জোবায়েরকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।