ভোলার লালমোহন সদর ইউনিয়নের দক্ষিণ মেহেরগঞ্জ দেওয়ালকান্দি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠ হাঁটুপানিতে থৈ থৈ করছে। মাছ চাষের খামার বললে ভুল হবে না। আর এতেই শিক্ষার্থীরা পড়েছে দুর্ভোগে। শরীরচর্চা, খেলাধুলা, আ্যাসেমব্লি সবই বন্ধ। এ নিয়ে শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও শিক্ষকদের ক্ষোভের শেষ নেই। মাঠ দীর্ঘদিন সংস্কার না করা, পানি নিস্কাশনের ব্যবস্থা না থাকা, পুরনো নালা বন্ধ থাকা, আশপাশে পরিকল্পনাবিহীন বাড়িঘর নির্মাণ করায় এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। শিক্ষার্থীরা জানায়, তারা এ পরিস্থিতিতে স্কুলে আসতে বিড়ম্বনায় পড়ছে। বিরতির সময়ে মাঠে খেলাধুলা করতে পারছে না। আবার ময়লা পানিতে পড়ে আহত হয় অনেকে। প্রধান শিক্ষিক নুর সাহিদা বলেন, বর্ষা মৌসুমে স্কুলের মাঠে পানি থাকে। এতে শিশু শিক্ষার্থীদের নিয়ে তাদের ভয়ের মধ্যে থাকতে হচ্ছে। স্কুলের কার্যক্রম ব্যাহত হচ্ছে। পানি থেকে পচা ও দুর্গন্ধ ছড়ানোর ফলে স্কুলে পাঠদানও ব্যাহত হয়। দুই শতাধিক ছাত্রছাত্রী এ পরিবেশের শিকার। বর্ষা মৌসুমের শুরু থেকে মাঠটি জলাবদ্ধ হয়ে পড়ায় খেলাধুলা করতে পারছে না। একই সঙ্গে পানি নিস্কাশনের দাবিও তাদের। ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মো. আমজাদ হোসেন জানান, মাঠটি ভরা করা ও ড্রেন নির্মাণের জন্য বহুবার প্রস্তাব করা হয়েছিল। তবে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে না।

উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মো. কামরুজ্জামান বলেন, মাঠটি সংস্কার  করার জন্য ম্যানেজিং কমিটির আবেদন পেলে তারা শিক্ষা কমিটির  সভায় প্রস্তাব তুলবেন।

মন্তব্য করুন