মাছের ঘেরে বিদ্যুৎ কোম্পানির বালু ভরাট

কলাপাড়া

প্রকাশ: ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮      

এস এম মোশারফ হোসেন মিন্টু, কলাপাড়া (পটুয়াখালী)

পায়নি কোনো ক্ষতিপূরণের টাকা। এমনকি নির্দিষ্ট ফরমে অধিগ্রহণের তালিকায় অন্তর্ভুক্ত না করে দুটি মাছের ঘের বালু দিয়ে ভরাট করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন ক্ষতিগ্রস্ত ঘেরের মালিক। কোনো উপায় না পেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত গাজী কামরুল ইসলাম পটুয়াখালী যুগ্ম জেলা জজ আদালতের দ্বারস্থ হয়েছেন। আদালত বিরোধীয় ভূমিতে ৩ অক্টোবর পর্যন্ত বিবাদী পক্ষকে স্থিতাবস্থার নির্দেশ দিয়েছেন। তাও মানা হচ্ছে না। বেসরকারি একটি বিদ্যুৎ কোম্পানির বিরুদ্ধে এ অভিযোগ উঠেছে।

ক্ষতির শিকার উপজেলার ধানখালী ইউনিয়নের কামরুল ইসলাম জানান, রুরাল পাওয়ার কোম্পানি নামের একটি প্রতিষ্ঠান তাদের বাড়িঘর সংলগ্ন এলাকা অধিগ্রহণ করেছে। এতে তারা জমি দিয়েছেন। যার নোটিসসহ কাগজপত্র পেয়েছেন। ধানখালী মৌজায় ২৪৬ খতিয়ানে আটশ' ফুট দীর্ঘ এক শ' ফুট প্রস্থ এবং ১২ গভীর মাছের ঘের রয়েছে। একইভাবে ৩৪৩ খতিয়ানে অনুরূপ আরও একটি মাছের ঘের রয়েছে। যা অধিগ্রহণের আওতাভুক্ত করা হয়নি। ঘের প্রকল্পভুক্ত করতে তিনি ২০১৭ সালের ৮ জুন এবং ১০ অক্টোবর পটুয়াখালী ভূমি হুকুমদখল কর্মকর্তার কাছে আবেদন করেন। কার্যকর কোনো পদক্ষেপ গ্রহণ না করায় কামরুল ইসলাম পটুয়াখালী জেলা যুগ্ম জজ আদালতে ২০১৮ সালের ১৫ মার্চ মামলা করেন। যেখানে পটুয়াখালীর জেলা প্রশাসক, ভূমি অধিগ্রহণ কর্মকর্তা পটুয়াখালী, ইউএনও কলাপাড়া, ভূমি অধিগ্রহণ শাখা পটুয়াখালীর সার্ভেয়ার, কানুনগো ও আরপিসিএলএর প্রকল্প পরিচালককে বিবাদী করা হয়। আদালত বিবাদীদের শোকজ করেন। এরপরও কোনো প্রতিকার না পেয়ে কামরুল ইসলাম অ্যাডভোকেট কমিশনের তদন্ত প্রতিবেদনের জন্য আদালতে আবেদন করেন। আদালতের নির্দেশে গঠিত অ্যাডভোকেট কমিশনার মো. মনিরুজ্জামান গত ৩০ মে মাঠ পর্যায়ে তদন্ত করে আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে আদালত স্থিতিবস্থার নির্দেশ দেন। এরপরও আরপিসিএলএর নিয়োজিত ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের লোকজন ঘেরটি বালু দিয়ে ভরাট করে কাজ করছে।

ওই প্রকল্পের বালুর লোড-আনলোডের দায়িত্বে নিয়োজিত মো. শফিক জানান, আদালতের নিষেধাজ্ঞা অবশ্যই মানতে হবে। তবে একটি ঘেরে আগেই বালু ঢুকে গেছে। বাকি ঘেরে বালু দেওয়া বন্ধ করে দিয়েছি। আরপিসিএলের নির্বাহী পরিচালক মো. সেলিম ভুইয়া জানান, ওখানে বালু ফেলা হয়নি। আশপাশের জায়গায় ফেলা বালু বৃষ্টির পানিতে নিচু জমিতে চলে গেছে। তারপরও তিনি বিষয়টি সম্পর্কে খোঁজ-খবর নেওয়া হবে।
মরা চড়কও 'প্রাণ' পায় অমলের ঢোলে

মরা চড়কও 'প্রাণ' পায় অমলের ঢোলে

বড়াল নদীর পাড়। বোঁথর চড়কবাড়ি গ্রাম। গ্রাম বললে খানিকটা ভুল ...

আনিসের অসমাপ্ত কাজ সমাপ্ত করতে চান আতিক

আনিসের অসমাপ্ত কাজ সমাপ্ত করতে চান আতিক

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র নির্বাচিত হলে প্রয়াত মেয়র ...

কথা রাখেননি ব্যবসায়ীরা

কথা রাখেননি ব্যবসায়ীরা

সম্প্রতি দেশে চালের দাম কেজিতে বেড়েছে ৩ থেকে ৭ টাকা। ...

মামলায় বিপাকে বিএনপি

মামলায় বিপাকে বিএনপি

অসংখ্য মামলায় অভিযুক্ত ও কারাগারে আটক নেতাকর্মীদের মুক্তি নিয়ে বিপাকে ...

রাস্তা পার হতে গিয়ে পরপারে কলেজছাত্রী

রাস্তা পার হতে গিয়ে পরপারে কলেজছাত্রী

সকালে কলেজে যাওয়ার জন্য বাসা থেকে বের হয় শিক্ষার্থী সোমা। ...

ইচ্ছামতো চলছে বাস, পথচারীও

ইচ্ছামতো চলছে বাস, পথচারীও

শাহবাগ মোড় থেকে বাংলামটর যাওয়ার রাস্তাটি পুরোটাই ফাঁকা। তবে ট্রাফিক ...

২২৬ আইডি পেজ শনাক্ত

২২৬ আইডি পেজ শনাক্ত

ফেসবুক, হোয়াটসঅ্যাপসহ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একাধিক মন্ত্রীসহ রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ ...

এবার চ্যাম্পিয়নদের হারাল সিলেট

এবার চ্যাম্পিয়নদের হারাল সিলেট

তলানিতে পড়ে থাকা দল রাজশাহীর কাছে এরআগে ম্যাচ হেরেছে গেলবারের ...