শিক্ষকের পিটুনিতে ছাত্র হাসপাতালে

প্রকাশ: ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮      

মাগুরা প্রতিনিধি

প্রশ্নের যথাযথ উত্তর দেওয়ার সময় উচ্চারণগত ত্রুটিসহ তোতলামি করায় ক্ষুব্ধ হয়ে মাগুরা সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের এক শিক্ষক নবম শ্রেণির অসুস্থ এক ছাত্রকে নির্দয়ভাবে পিটিয়ে আহত করেছেন। ওই ছাত্র বর্তমানে মাগুরা সদর হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে। এ ঘটনায় প্রতিকার চেয়ে ছাত্রের বাবা জেলা প্রশাসকের কাছে লিখিত অভিযোগ করেছেন।

অসুস্থ ছাত্র যায়েদ বিন জামানের বাবা মাগুরা শহরের আদর্শপাড়ার বাসিন্দা মুন্সী কায়েমুজ্জামান বলেন, আমার ছেলে দীর্ঘদিন ধরে টিস্যুজনিত দুর্বলতায় আক্রান্ত। এ কারণে তাকে নিয়মিত ফিজিওথেরাপি দিতে হয়। সঙ্গত কারণে আমি এ বছরের জুলাইয়ে লিখিত দরখাস্তের মাধ্যমে আমার সন্তানকে কোনো কারণেই মারধর করা থেকে বিরত থাকার আবেদন জানিয়েছিলাম। কিন্তু মঙ্গলবার ওই স্কুলের শিক্ষক মৃত্যুঞ্জয় চৌধুরী তার প্রশ্নের যথাযথ জবাব দিতে না পারায় আমার ছেলেকে নির্দয়ভাবে মারধর করেন। ছেলে মারধরের বিষয়টি আমাদের কাছে গোপন রাখা হয়। কিন্তু রাতে সে অসুস্থ হয়ে পড়লে আমরা বিষয়টি বুঝতে পেরে দ্রুত মাগুরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করি। বর্তমানে সে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। এ ঘটনায় প্রতিকার চেয়ে ছাত্রের বাবা জেলা প্রশাসকের কাছে লিখিত অভিযোগ করেছেন।

মাগুরা সদর হাসপাতালে ভর্তি ছাত্র যায়েদ বিন জামান বলে, আমি স্যারের মারের হাত থেকে বাঁচার জন্য পা জড়িয়ে ধরলেও তিনি আরও মারতে থাকেন, আর বলেন, আমি কখন হাসি, কখন রাগি, তা ওপর ওয়ালাও জানে না।

শিক্ষক মৃত্যুঞ্জয় চৌধুরী বলেন, ওই ছাত্রের কথাবার্তা আমার কাছে ব্যাঙ্গাত্মক বলে মনে হয়েছিল। এ কারণে তাকে শাসন করেছি। তবে সে যে গুরুতর অসুস্থ তা আমার জানা ছিল না। এ কারণে আমি দুঃখিত। আমি তাকে হাসপাতালে দেখতে এসেছি।

জেলা প্রশাসক আতিকুর রহমান জানান, ছাত্র মারধরের ঘটনায় তিনি লিখিত অভিযোগ পেয়েছেন। বিষয়টি তদন্তে একজন ম্যাজিস্ট্রেটকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।
চাঁপাইনবাবগঞ্জে জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে র‌্যাবের অভিযান, আটক ১

চাঁপাইনবাবগঞ্জে জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে র‌্যাবের অভিযান, আটক ১

চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জে জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে ১৫টি বাড়িতে অভিযান চালিয়ে একজনকে ...

বদির তিন ভাই 'সেফহোমে'

বদির তিন ভাই 'সেফহোমে'

স্বেচ্ছায় আত্মসমর্পণে ইচ্ছুক ইয়াবাকারবারিরা এখন কক্সবাজারে পুলিশ হেফাজতে এক ধরনের ...

প্রবৃদ্ধির প্রথম সারিতে থাকবে বাংলাদেশ

প্রবৃদ্ধির প্রথম সারিতে থাকবে বাংলাদেশ

চলতি বছর বিশ্বের যেসব দেশে ৭ শতাংশ বা এর বেশি ...

পেশা পাল্টাচ্ছে পাঁচুপুরের কামার কুমার জেলেরা

পেশা পাল্টাচ্ছে পাঁচুপুরের কামার কুমার জেলেরা

কামারপাড়া। ভেবেছিলাম পাড়ায় ঢুকতেই হাঁপর আর লোহা পেটানোর শব্দ শোনা ...

স্বেচ্ছাশ্রমে ১০ কিলোমিটার রাস্তা

স্বেচ্ছাশ্রমে ১০ কিলোমিটার রাস্তা

'দশে মিলে করি কাজ, হারি জিতি নাহি লাজ'- এ প্রবাদটিকে ...

এমএম কলেজে নির্বাচনে বাধা গঠনতন্ত্র

এমএম কলেজে নির্বাচনে বাধা গঠনতন্ত্র

গঠনতন্ত্রের 'সামান্য বাধা'য় দেয়াল উঠেছে যশোর সরকারি মাইকেল মধুসূদন কলেজ ...

ক্রমেই বড় হচ্ছে একুশে বইমেলা

ক্রমেই বড় হচ্ছে একুশে বইমেলা

ক্রমে বিকশিত হচ্ছে প্রকাশনা শিল্প। সেইসঙ্গে প্রকাশকের সংখ্যাও বাড়ছে প্রতিবছর। ...

এক কেজি চালের দামে এক মণ ফুলকপি

এক কেজি চালের দামে এক মণ ফুলকপি

বগুড়ায় শীতকালীন সবজির বাম্পার ফলন হলেও দাম পাচ্ছেন না চাষিরা। ...