অবশেষে নিজের কার্ড পেলেন জামিল

প্রকাশ: ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮      

ঈশ্বরগঞ্জ (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি

কার্ডে নাম জামিল উদ্দিন। ছবি অন্যজনের। প্রতিবন্ধী জামিল উদ্দিনের নাম ব্যবহার করে তিন বছর ধরে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির চাল তুলে নিচ্ছিল লাল মিয়া নামে অন্য এক ব্যক্তি। শেষ পর্যন্ত ধরা পড়েছে জালিয়াতির বিষয়টি। ওই অবস্থায় প্রকৃত ব্যক্তিকেই দেওয়া হয়েছে কার্ড। এমন ঘটনা ঘটেছে ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে।

উপজেলার মগটুলা ইউনিয়নের শ্রীরামপুর গ্রামের বাসিন্দা জামিল উদ্দিন। ২০১৬ সালে জামিল উদ্দিনের নামে একটি খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির কার্ড ইস্যু হয়। তাতে জামিল উদ্দিনের ছবির পরিবর্তে ছবি লাগানো ছিল লাল মিয়ার। প্রতিবন্ধী জামিল উদ্দিনের নামের কার্ড দিয়ে তিন বছর ধরে ১০ টাকা কেজির চাল তুলে নিচ্ছিল প্রতিবেশী লাল মিয়া। মঙ্গলবার যখন চাল নিতে যায় তখন ধরা পড়ে লাল মিয়া। মধুপুর বাজারে ডিলার শাহজাহান কবীরের দোকানে চাল নিতে গেলে যাচাই করা হয় কার্ডটি। ওই সময় জেরার মুখে নিজের আসল পরিচয় দিয়ে লাল মিয়া সটকে পড়ে। ওই অবস্থায় খবর পেয়ে বুধবার সকাল থেকে ডিলারের দোকানে অবস্থান নেন প্রকৃত কার্ডধারী জামিল উদ্দিন। নিজের নামে কার্ড বরাদ্দ হলেও সেই কার্ড দিয়ে অন্য কেউ চাল তুলে নেওয়ায় তিনি আহাজারি করে বিচার চান।

ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক এইচএম কামরুজ্জামান বলেন, ছবি জালিয়াতির মাধ্যমে একজনের বরাদ্দ অন্যজন তুলে নিচ্ছিল। বিষয়টি ধরা পড়ার পর প্রকৃত ব্যক্তিকেই কার্ড ফেরত দেওয়া হয়েছে।