আগৈলঝাড়ায় দুস্থ মানবতার হাসপাতাল বন্ধ

প্রকাশ: ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯      

আগৈলঝাড়া (বরিশাল) প্রতিনিধি

বরিশালের আগৈলঝাড়ায় প্রসূতির মৃত্যুসহ বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগে দুস্থ মানবতার হাসপাতালের সব কার্যক্রম বন্ধ করে দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। গতকাল বুধবার দুপুর ১২টার দিকে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পুলিশ ফোর্স নিয়ে শহরের ফুল্লশ্রী বাইপাস সড়কে অবস্থ্থিত দুস্থ্থ মানবতার প্রাইভেট হাসপাতালে অভিযান পরিচালনা করেন।

গত ৩০ জানুয়ারি হাসপাতালে অপারেশনের টেবিলে এক গৃহবধূর মৃত্যু এবং মৃত্যুর পর তাকে অ্যাম্বুলেন্সযোগে বরিশালে পাঠানোর সংবাদ বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশের পর বরিশাল-১ আসনের এমপি আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ জানতে পারেন বিষয়টি। তৎক্ষণাৎ তিনি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিপুল চন্দ্র দাসকে আইনগত ব্যবস্থ্থা নেওয়ার নির্দেশ দেন। এমপির নির্দেশ পেয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত হাসপাতালটিতে অভিযান চালান। অভিযানের সময় ১০ বেডের ওই হাসপাতালে প্রয়োজনীয় সংখ্যক চিকিৎসক, নার্স, ল্যাবরেটরি টেকনিশিয়ানসহ প্রয়োজনীয় জনবল, পরিবেশ অধিদপ্তর ও ফায়ার সার্ভিসের সনদ না থাকায় হাসপাতালের সব কার্যক্রম বন্ধ ঘোষণা করেন ম্যাজিস্ট্রেট। এ সময় আদালত সেখানে ভর্তি রোগীদের উপজেলা সরকারি হাসপাতালে স্থানান্তরেরও নির্দেশ দেন।

অভিযানের সময় হাসপাতালটিতে কোনো চিকিৎসক, নার্স ও ল্যাবরেটরি টেকনোলজিস্টের উপস্থিতি পাননি ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ ছাড়া ৩০ জানুয়ারি অন্তঃসত্ত্বার ভর্তি রেজিস্ট্রারে কোনো চিকিৎসকের নাম দেখতে পাননি আদালত। এদিকে, অ্যানেসথেসিয়া ডাক্তার আবদুল্লাহ আল মামুন ফোনে আদালতের কাছে স্বীকার করেছেন যে তার কোনো অ্যানেসথেসিয়ার সনদ নেই।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের ম্যাজিস্ট্রেট বিপুল চন্দ্র দাস বলেন, হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে হাসপাতাল পরিচালনার জন্য প্রয়োজনীয় সব কাগজপত্র উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তার কাছে জমা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। কাগজপত্র পেলে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।