ইউএনওর হস্তক্ষেপে দাকোপে বাল্যবিয়ে বন্ধ

প্রকাশ: ০২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯      

দাকোপ (খুলনা) প্রতিনিধি

খুলনার দাকোপ উপজেলায় মাদ্রাসাপড়ূয়া এক কিশোরীর (১৪) বাল্যবিয়ের আয়োজন চলছিল। খবর পেয়ে বৃহস্পতিবার রাত ১০টার দিকে উপজেলার পানখালী ইউনিয়নের পানখালী দক্ষিণপাড়া গ্রামে বিয়ের আয়োজনে হাজির হন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবদুল ওয়াদুদ। পরে কিশোরীর পরিবার ও পাত্রপক্ষের পরিবারের সঙ্গে কথা বলে বাল্যবিয়েটি বন্ধ করেন তিনি। বাল্যবিয়ে দেওয়ার সময় হাতেনাতে ধরা পড়েন 'কাজী' হুসাইন আহম্মেদ (৫৬)।

জানা যায়, ওই কিশোরী স্থানীয় একটি মাদ্রাসার প্রথম জামাত বিভাগের ছাত্রী। বৃহস্পতিবার রাতে ওই কিশোরীর সঙ্গে বিশ বছর বয়সী এক তরুণের বিয়ের সব আয়োজন করেছিলেন মেয়ের বাবা। এলাকাবাসীর কাছে খবর পেয়ে পুলিশ নিয়ে হাজির হন ইউএনও আবদুল ওয়াদুদ। এ সময় তারা পাত্রপাত্রীর অভিভাবকদের কাছ থেকে মুচলেকা নেন এবং ঘটনাস্থল থেকে কাজীকে গ্রেফতার করেন।