চাঁদা না দেওয়ায় বাঁশখালীতে সীমানা দেয়াল ভাংচুর

প্রকাশ: ০২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯      

বাঁশখালী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি

চট্টগ্রামের বাঁশখালী উপজেলার বৈলছড়ি ইউনিয়নের চেচুরিয়া গ্রামে গভীর রাতে সীমানা প্রাচীর ভাংচুর করেছে সশস্ত্র দুর্বৃত্তরা। এ সময় তাদের হামলায় গুরুতর আহত হয়েছেন চারজন। আহতদের মধ্যে দু'জনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অপর আহত দু'জন বাঁশখালী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। ঘটনার পর বাঁশখালী থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে। এদিকে ঘটনায় আহতদের পক্ষ থেকে থানায় অভিযোগ করা হয়েছে।

ভুক্তভোগীরা জানান, বৈলছড়ির চেচুরিয়া গ্রামের মাহমুদুল হকের কাছ থেকে ২০১৪ সালে ৮ শতক জায়গা ক্রয় করেন রশিদ আহমদ গং। এ জায়গা তারা ভোগদখল করে আসছিলেন। কয়েকদিন আগে এ জায়গায় বসতবাড়ি তৈরি করার জন্য সীমানা প্রাচীর নির্মাণের কাজ শুরু করেন রশিদ আহমদ। ওই জায়গার ওপর কিছু সন্ত্রাসীর নজর পড়ে এবং চাঁদা দাবি করে। এদিকে চাঁদা দিতে অপারগতা প্রকাশ করায় গত বৃহস্পতিবার গভীর রাতে ওই সীমানা প্রাচীর ভেঙে দেয় দুর্বৃত্তরা। এ সময় কাজের দায়িত্বে থাকা স্থানীয় হাশেম, শাহ আলম, নাসির, আবদুল গফুরকে গুরুতর জখম করে সন্ত্রাসীরা। এ ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্তদের পরিবারের পক্ষ থেকে গতকাল শুক্রবার থানায় অভিযোগ করা হয়েছে।

বৈলছড়ি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান কফিল উদ্দীন বলেন, রশিদ গংয়ের জায়গায় স্থানীয় দিদার বাহিনীর লোকজন রাতের অন্ধকারে সশস্ত্র হামলা চালিয়ে সীমানা প্রাচীর ভাংচুর করে এবং নির্মাণ কাজে কর্মরতদের মারধর করে।

বাঁশখালী থানার ওসি কামাল হোসেন বলেন, বিষয়টি তদন্ত করে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।