নেত্রকোনায় নদী থেকে কিশোরের লাশ উদ্ধার

প্রকাশ: ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯      

নেত্রকোনা প্রতিনিধি

বারহাট্টার বাউসি বাজারের দোকান কর্মচারী মো. আলিম মিয়ার লাশ সদর উপজেলার ঠাকুরাকোনা ইউনিয়নের গোলামখালি নদী থেকে বারহাট্টা থানা পুলিশ শনিবার উদ্ধার করেছে। সে বাউসি ইউনিয়নের মোয়াডি গ্রামের হবিবুর রহমান ওরফে হবি মিয়ার ছেলে এবং বাউসি বাজারের জামরুলের চা দোকানের কর্মচারী ছিল। ধারণা করা হচ্ছে, তাকে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা লাশ নদীতে ফেলে দেয়। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে পুলিশ দোকানি জামরুল, বাজারের অন্য দোকানের কর্মচারী সুজন মিয়া, মানিক ও আবদুস সালামকে আটক করেছে।

বারহাট্টার মোয়াডি গ্রামের বাউসি বাজারের দোকান কর্মচারী আলিম মিয়ার মরদেহ শনিবার সকালে বাউসি বাজারের পাশে গোলামখালি নদীতে ভাসতে দেখে এলাকাবাসী। খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে। তার শরীরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, দুর্বৃত্তরা শুক্রবার রাতে তাকে হত্যা করে লাশ নদীতে ফেলে দেয়। পরে বারহাট্টা থানা পুলিশ নেত্রকোনা মডেল থানা পুলিশের কাছে লাশ হস্তান্তর করে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠিয়েছে।