পাথরঘাটায় ইউপি চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে ভূমি অফিস ভাংচুর

কর্মকর্তা-কর্মচারীকে মারধর

প্রকাশ: ১৫ মার্চ ২০১৯      

পাথরঘাটা (বরগুনা) প্রতিনিধি

বরগুনার পাথরঘাটায় ঘুষ নেওয়ার অপরাধে উপজেলার রায়হানপুর ইউনিয়নের ভূমি অফিসের কর্মকর্তা ও কর্মচারীকে ব্যাপক মারধর ও অফিস ভাংচুর করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। বৃহস্পতিবার দুপুর ২টার দিকে রায়হানপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. মিজানুর রহমান রূপকের নেতৃত্বে স্থানীয় জনসাধারণ এ ঘটনা ঘটায়। মারধরের ঘটনায় ভূমি অফিসের তহশিলদার মো. জসিম উদ্দিন, এমএলএসএস ফারুক হোসেন, লাকী আক্তার ও হায়দার নামে চারজন আহত হয়েছেন। তাদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। এ ঘটনায় উপজেলা প্রসাশনের পক্ষ থেকে মামলার প্রস্তুতি চলছে। পাথরঘাটা উপজেলা নির্বাহী কর্মকতা ও ভূমি সহকারী কর্মকর্তা মো. হুমায়ুন কবির তার অফিসের আসবাবপত্র ভাংচুর, কর্মচারী ও কর্মকর্তাকে মারধরের কথা শিকার করেছেন।

স্থানীয়রা জানান, রায়হানপুর ইউনিয়নের লেমুয়া বাজারে ভূমি অফিসের তহশিলদার মো. জসিম উদ্দিন অফিসে যোগদান করার পর থেকে জনসাধারণ কাজ করতে গেলে তাদের কাছ থেকে প্রত্যেক কাজের জন্য মোটা অঙ্কের টাকা ঘুষ দাবি করেন। টাকা না দিলে কোনো কাজই তিনি করেন না। বিষয়টি নিয়ে চেয়ারম্যানের কাছে নালিশ জানান স্থানীয়রা। পরে বৃহস্পতিবার সকালে চেয়ারম্যান তার অফিসে তহশিলদারকে ডেকে শাসিয়ে দেয়। এ নিয়ে বিভিন্ন লোকের কাছে দুপুরের দিকে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে তহশিলদার জসিম উদ্দিন বিরূপ মন্তব্য করলে চেয়ারম্যান রূপক শতাধিক মানুষ নিয়ে ভূমি অফিসে হামলা করে অফিসের আসবাবপত্র ভাংচুর এবং কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মারধর করেন।

এ ব্যাপারে চেয়ারম্যান রূপক জানান, লেমুয়া বাজারের তহশিল অফিসটি একটি ঘুষখোরদের আঁকড়ায় পরিণত হয়েছে। এ জন্য জনসাধারণ প্রতিবাদ করেছে। তাদের কোনো মারধর করা হয়নি। শনিবার এই দুর্নীতির বিরুদ্ধে মানববন্ধন করা হবে। পাথরঘাটা থানার ওসি মো. হানিফ সিকদার জানান, মামলার প্রস্তুতি চলছে। এ ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।