১৫ হাজার লোকের কাজের সুযোগ নষ্ট হচ্ছে

প্রকাশ: ১৫ মার্চ ২০১৯      

কিশোরগঞ্জ অফিস

গ্যাস, বিদ্যুৎ সংকট এবং সঠিক বর্জ্য ব্যবস্থাপনা না থাকায় ধুঁকে ধুঁকে চলছে কিশোরগঞ্জ বিসিক শিল্পনগরী। তবে চিহ্নিত সমস্যাগুলো দূর করে পুরোদমে উৎপাদনে গেলে এখানে সহজেই ১৫ হাজার লোকের কর্মসংস্থান হবে। অভিযোগ রয়েছে, কর্তৃপক্ষের অবহেলায় বিরাট এই সুযোগ নষ্ট হচ্ছে।

সংশ্নিষ্ট শিল্পোদ্যোক্তারা জানান, সরকার থেকে সঠিক পদক্ষেপ নিলেই পুরোদমে চালু হবে এই শিল্পনগরী। এটি হলে ১৫ হাজার লোকের কর্মসংস্থান হবে। কিশোরগঞ্জে বেকারত্ব দূর করার প্রধান ক্ষেত্র হয়ে উঠবে এই শিল্পনগরী।

কিশোরগঞ্জ বিসিক শিল্পনগরী মালিক সমিতির সভাপতি আজমল খান রুমেল জানান, কিশোরগঞ্জে শিল্পোদ্যোক্তার অভাব নেই। অভাব হলো ভালো পরিবেশের। সমস্যাগুলো দূর করে শিল্পনগরীতে সব সুবিধা নিশ্চিত করলে উদ্যোক্তারা অবশ্যই বিনিয়োগ করবেন।

বিসিকে স্থাপিত মানরী টেক্সটাইল মিলসে তৈরি হয় টেরি-টাওয়েল। মালিক মাহফুজুর রহমান জানান, সারাদেশে তার মিলের উৎপাদিত টাওয়েলের ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। তিনি ২৫০ জনকে কর্মসংস্থানের সুযোগ করে দিয়েছেন। গ্যাস সংযোগ না থাকায় পুরোপুরি উৎপাদনে যাওয়া যাচ্ছে না। পুরোদমে চালু করা গেলে ৫০০ মানুষের কর্মসংস্থান হবে।

কিশোরগঞ্জ বিসিকের সহকারী মহাব্যবস্থাপক (ভারপ্রাপ্ত) কামরুল আহসান জানান, গ্যাস, পানি ও বিদ্যুৎ সমস্যার কারণে শিল্পোদ্যোক্তরা উৎপাদনে যেতে পারছেন না। তবে এসব সমস্যা শিগগিরই দূর হবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।