অনেক কষ্টে ৩১ হাজার টাকা জোগাড় করে একটি ষাঁড় বাছুর কিনেছিলেন কৃষক আবদুস ছাত্তার। সাত মাস লালন-পালন করে ষাঁড়টিকে হূষ্টপুষ্ট করে তোলেন। স্বপ্ন ছিল আসছে ঈদুল আজহায় ষাঁড়টিকে বিক্রি করে লাভের মুখ দেখবেন; কিন্তু তার স্বপ্ন সর্বনাশা আগুন কেড়ে নিয়েছে। এমন ঘটনা ঘটেছে ময়মনসিংহের গৌরীপুরে।

উপজেলার সহনাটি ইউনিয়নের পেচাঙ্গিয়া গ্রামের প্রয়াত মিরাজ আলীর ছেলে কৃষক। আবদুস ছাত্তার। প্রতি মাসে ষাঁড়ের জন্য ভুসি, খৈল ও অন্যান্য খাবার বাবদ তার দুই হাজার টাকার বেশি খরচ হতো। কিছুদিন আগে ষাঁড়টির ৮০ হাজার টাকা দাম হয়। কিন্তু ঈদের মধ্যে দাম বেশি হতে পারে- এ আশায় ছাত্তার ষাঁড়টি বিক্রি করেননি। শুক্রবার রাতে এটিকে খাবার খাইয়ে গোয়ালঘরে বেঁধে ঘুমাতে যান ছাত্তার। শনিবার ভোরে ঘুম থেকে উঠে দেখেন, গোয়ালঘরে আগুন জ্বলছে। পরে তার চিৎকারে পরিবার ও স্থানীয়রা এসে পানি ঢেলে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনলেও আগুনে পুড়ে মারা যায় ষাঁড়টি। আগুনে পুড়ে যায় গোয়ালঘরটিও।

আবদুস ছাত্তার বলেন, সন্তানের মতো লালন-পালন করে ষাঁড়টিকে বড় করেছিলাম। স্বপ্ন ছিল কোরবানির ঈদে বিক্রি করব। পরিবার নিয়ে ভালোভাবে ঈদ উদযাপনের স্বপ্ন ছিল। কিন্তু আগুনে সে স্বপ্ন পুড়ে ছারখার হলো।

মন্তব্য করুন