শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী রুটে ৪ ঘণ্টা নৌযান চলাচল বন্ধ

প্রকাশ: ০৮ জুলাই ২০১৯

শিবচর (মাদারীপুর) প্রতিনিধি

বৈরী আবহাওয়া ও প্রবল বৃষ্টিপাতের ফলে শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী নৌরুটে চার ঘণ্টা ফেরিসহ সব প্রকার নৌযান চলাচল বন্ধ ছিল। এর ফলে রাজধানী ঢাকাসহ দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের যাত্রীরা অসহনীয় দুর্ভোগের কবলে পড়েন পদ্মা পারে।

বিআইডব্লিউটিসি সূত্রে জানা যায়, শনিবার রাত ১১টা থেকে বৃষ্টি শুরু হয়। রাত ১২টায় ঝড় শুরু হলে দুর্ঘটনা এড়ানোর জন্য এই নৌরুটের ফেরিসহ সব প্রকার নৌযান চলাচল বন্ধ রাখা হয়। ভোর ৪টায় আবহাওয়া অনুকূলে আসায় ফেরিসহ সব প্রকার নৌযান চলাচল স্বাভাবিক হয়। এদিকে শনিবার মধ্যরাতে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল থেকে ছেড়ে আসা ৭২টি নৈশকোচ ঘাট এলাকায় অবস্থান করে। চার ঘণ্টা আটকে থাকার পর এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ৩৫টি নৈশকোচ পারাপারের অপেক্ষায় রয়েছে। উভয় পাড়ে পণ্যবাহী ট্রাক ও ছোট ছোট যানবাহনের ভিড়ে যানজট প্রকট আকার ধারণ করেছে। লৌহজং টার্নিং পয়েন্টে অতিরিক্ত ঘূর্ণিস্রোতের ফলে রো রো ও ডাম্প ফেরিগুলোর চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। প্রতিটি ফেরি এক থেকে দেড় ঘণ্টা সময় বেশি নিয়ে পদ্মা পারাপার হচ্ছে।

বিআইডব্লিউটিসির কাঁঠালবাড়ী ঘাট ইনচার্জ আব্দুস সালাম মিয়া জানান, বৈরী আবহাওয়া ও প্রবল বৃষ্টিপাতের ফলে এই নৌরুটে চার ঘণ্টা ফেরি চলাচল বন্ধ থাকায় উভয় পাড়ে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। এ ছাড়া কয়েকদিন ধরে প্রবল বৃষ্টিপাত ও উজান থেকে নেমে আসা ঢলে পদ্মা নদীর পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় ডাম্প ও রো রো ফেরিগুলো মারাত্মক ঝুঁকির মুখে পদ্মা পারাপার হচ্ছে।