ধর্ষণ মামলায় চার যুবকের যাবজ্জীবন

প্রকাশ: ১০ জুলাই ২০১৯      

কিশোরগঞ্জ অফিস

১১ বছরের শিশুকে অপহরণ ও গণধর্ষণের অভিযোগে কিশোরগঞ্জের নারী ও শিশু নির্যাতনের বিশেষ ট্রাইব্যুনাল আদালত-১-এর বিচারক কিরণ শংকর হাওলাদার মঙ্গলবার চার যুবককে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড, প্রত্যেককে এক লাখ টাকা করে জরিমানা, অনাদায়ে দুই বছর সশ্রম কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন। যাবজ্জীবনপ্রাপ্ত আসামিরা হলো সুমন মিয়া, ফারুক মিয়া, রুবেল মিয়া ও হেলাল। তাদের সবার বাড়ি করিমগঞ্জ উপজেলার আশুতিয়াপাড়া।

২০১৫ সালের ১১ মে শিশুটির মা অসুস্থ হলে করিমগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়। ওই রাতে শিশুটি বাবা ও চাচার সঙ্গে অসুস্থ মাকে দেখতে করিমগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যায়। মাকে দেখে বাবা ও চাচার সঙ্গে রাত সাড়ে ১২টায় বাড়ি ফেরার পথে গুজাদিয়া রামনগর শাহ আলী মাজার সংলগ্ন এলাকা থেকে ওই চার দুর্বৃত্ত বাবা ও চাচাকে মারপিট করে শিশুটিকে অপহরণ করে নিয়ে যায়। পরে পার্শ্ববর্তী একটি জঙ্গলে নিয়ে ধর্ষণ করে। এ সময় শিশুটি জ্ঞান হারিয়ে ফেলে। পরে অনেক খোঁজাখুঁজির পর ভোর রাতে স্থানীয় সেলঙ্কা সেতুর কাছে অজ্ঞান ও মুমূর্ষু অবস্থায় শিশুটিকে উদ্ধার করে প্রথমে করিমগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পরে কিশোরগঞ্জ ২৫০ শয্যার হাসপাতালে ভর্তি করেন।