নাসিরনগর সরকারি কলেজে ফের ভর্তি বাণিজ্য

প্রকাশ: ০৪ জুলাই ২০১৯

নাসিরনগর (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) সংবাদদাতা

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগর কলেজে আবারও ভর্তি বাণিজ্যের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

উপজেলার একমাত্র সরকারি উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠান নাসিরনগর সরকারি ডিগ্রি কলেজে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি বাবদ অতিরিক্ত টাকা আদায়ের অভিযোগ উঠেছে কলেজ কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে।

শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, কলেজ কর্তৃপক্ষ ভর্তি ফি আদায়ে শিক্ষা বোর্ডের নির্দেশনা না মেনে অতিরিক্ত এক হাজার ১৪৫ টাকা নিচ্ছে। অথচ একই উপজেলার চাতলপাড় ডিগ্রি কলেজে এ বছর একাদশ

শ্রেণিতে ভর্তি বাবদ সাকল্যে ফি নেওয়া হচ্ছে ৯৮০ টাকা।

নাসিরনগর মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক পূর্ণা দাস বলেন, আমার মেয়ে প্রত্যাশা দাস বিজ্ঞান বিভাগে নাসিরনগর সরকারি কলেজে ভর্তি হয়েছে। কলেজ কর্তৃপক্ষ ভর্তি ফি নিয়েছে দুই হাজার ১৪৫ টাকা। বায়জিদ হোসেন ও মুক্তার হোসেন জানান, আমরা ভর্তি হয়েছি দুই হাজার ১৪৫ টাকা দিয়ে। এ ছাড়া ভর্তি ফরম বাবদ দিয়েছি ২০০ টাকা।

চলতি বছরের ২১ এপ্রিল শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব সোহরাব হোসাইনের স্বাক্ষরিত এক

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে একাদশ শ্রেণিতে সেশন ফিসহ সাকল্যে উপজেলা ও পৌর এলাকার কলেজগুলোর জন্য ভর্তি ফি এক হাজার টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। অতিরিক্ত ফি নিলে

সংশ্নিষ্ট প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

অথচ নাসিরনগর সরকারি ডিগ্রি কলেজে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি বাবদ শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে দুই হাজার ১৪৫ টাকা করে আদায় করা হচ্ছে।

নাসিরনগর ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ আলমগীর হোসেন বলেন, অতিরিক্ত টাকা কেন নেওয়া যাবে না? না নিলে কলেজ কীভাবে

চলবে? অতিরিক্ত টাকা নেওয়ার বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অবগত আছেন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নাসিরনগর সরকারি কলেজের সভাপতি মোহাম্মদ সাইফুল কবির জানান, গত বছর ভর্তি ফি বাবদ দুই হাজার ৮০০ টাকা নেওয়া হয়েছে। এ বছর বোর্ডের নীতিমালা অনুযায়ী এক হাজার টাকা নেওয়া হচ্ছে। অতিরিক্ত টাকা নেওয়া হচ্ছে কি-না জানতে চাইলে তিনি যোগ করেন, মোট দুই হাজার ১৪৫ টাকা নেওয়া হচ্ছে। এক হাজার টাকা ভর্তি ফি আর বাকি টাকা কলেজ উন্নয়নের জন্য নেওয়া হচ্ছে।