সুতি নদীতে বাঁশের সাঁকো

প্রকাশ: ০৫ জুলাই ২০১৯

কেন্দুয়া (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি

কেন্দুয়া উপজেলার মোজাফরপুর ইউনিয়নের সীমান্তবর্তী সুতি নদীর ওপর একটি বাঁশের সেতু দিয়েই ৪০ গ্রামের মানুষের পারাপার শুরু হয়েছে। এই বাঁশের সেতুটি নির্মিত হওয়ার ফলে ঢাকা বিভাগের কিশোরগঞ্জ জেলার তাড়াইল উপজেলার রাউতী ইউনিয়নের সীমান্তবর্তী দাউদপুর বানাইল গ্রাম এবং ময়মনসিংহ বিভাগের নেত্রকোনা জেলার কেন্দুয়া উপজেলার মোজাফরপুর ইউনিয়নের গগডা গ্রামসহ প্রায় ৪০ গ্রামের মানুষের মধ্যে সেতুবন্ধ শুরু হয়েছে।

খেয়া পারাপারের মাধ্যমে এতদিন মানুষ চলাচল করে আসছিল। সমস্যা সমাধানে মোজাফরপুর ইউনিয়ন পরিষদের উদ্যোগে লক্ষাধিক টাকা ব্যয়ে নির্মাণ করা হয় একটি বাঁশের সেতু। আর এ সেতুটি বুধবার আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করেন কেন্দুয়া ইউএনও আল-ইমরান রুহুল ইসলাম ও তাড়াইল ইউএনও তারেক মাহমুদ। এ সময় কেন্দুয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. নূরুল ইসলাম, মোজাফরপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এনএএম জাহাঙ্গীর চৌধুরী ও রাউতি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শরীফ উদ্দিন জুয়েলসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তি এবং গণমাধ্যম কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। উদ্বোধনের পর দুই ইউএনও সেতুর ওপর দিয়ে সূতী নদী পার হয়ে একে অপরের সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন। সুধী সমাবেশে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. নূরুল ইসলাম বলেন, উন্নয়নের মহাসড়কে দেশের বিভিন্ন অঞ্চল যুক্ত হচ্ছে। কেন্দুয়াও এর বাইরে নেই; কিন্তু এই বাঁশের সেতু দিয়ে আজকেই সুতি নদী পার হচ্ছে এলাকার মানুষ। এই বাঁশের সেতুর ওপর দিয়ে দুই উপজেলার অন্তত ৪০টি গ্রামের হাজার হাজার মানুষ পারাপার হবে।