তাড়াশের এলজিইডি কার্যালয়

উপসহকারী প্রকৌশলীর বিরুদ্ধে ঘুষ নেওয়ার অভিযোগ

প্রকাশ: ১০ আগস্ট ২০১৯      

তাড়াশ (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি

সিরাজগঞ্জের তাড়াশ উপজেলা এলজিএডি কার্যালয়ের এক উপসহকারী প্রকৌশলীর বিরুদ্ধে ৩ লাখ টাকা ঘুষ নেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত ৬ আগস্ট উপজেলা প্রকৌশলী বরাবর পৃথক দুটি লিখিত অভিযোগ করেন এলাকাবাসী। দুটি রাস্তা পাকাকরণের কথা বলে দুই বছর আগে ওই ঘুষ নেন বলে অভিযোগ করা হয়। তবে উপসহকারী প্রকৌশলী ইসমাইল হোসেন বর্তমানে পিএলআরে রয়েছেন বলে জানা গেছে।

লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, নির্বাহী প্রকৌশলী, এলজিইডি ও প্রকল্প পরিচালকের নাম ভাঙিয়ে গুড়পিপুল-ধলাপাড়া আঞ্চলিক সড়ক (প্যাকেজ নং-১৮৮৮৯৪০৩৯) রাস্তা পাকাকরণের কথা বলে ওই এলাকার জ্ঞানেন্দ্র নাথ বসাকের কাছ থেকে উপসহকারী প্রকৌশলী ইসমাইল হোসেন ১ লাখ টাকা উৎকোচ নেন।

এ ছাড়া তাড়াশ-নওগাঁ জিসি পাকাকরণ ঘড়গ্রাম পূর্বপাড়া-ওয়াপদা (আরএইচডি) আরেকটি সড়ক (চেইনেজ ০০-১১৫০ মিটার, প্যাকেজ নং ১৮৮৮৯৫০০৫) কাজ করে দেওয়ার কথা বলে ওই এলাকার মৃত মোজাম্মেল হকের ছেলে সুজন সরকার, মৃত মতি সরকারের ছেলে আবু তাহের ও মৃত আবদুস সাত্তারের ছেলে রফিকুল ইসলামের কাছ থেকে তিনি আরও ২ লাখ টাকা উৎকোচ নেন।

উপজেলা প্রকৌশলী আলী আহম্মেদ বিষয়টি নিশ্চিত করে জানিয়েছেন, লিখিত অভিযোগগুলো পেয়েছি। তদন্ত করে ব্যবস্থা  নেওয়া হবে।

এ প্রসঙ্গে উপসহকারী প্রকৌশলী (পিএলআর) ইসমাইল হোসেন মোবাইল ফোনে অভিযোগ অস্বীকার করে জানান, বর্তমানে তিনি পিএলআরে আছেন। আর তার বিরুদ্ধে কী অভিযোগ হয়েছে সেটা তিনি জানেন না।