মাটিতে পুঁতে রাখা যুবকের মাথা ও দেহ উদ্ধার

প্রকাশ: ১৫ আগস্ট ২০১৯

দিনাজপুর প্রতিনিধি

খানসামা উপজেলার আলোকঝাড়ী ইউনিয়নের শুশুলী গ্রামে মাটির নিচের দুটি স্থান থেকে গত মঙ্গলবার গোলাপ হোসেন নামে নিহত এক যুবকের মাথা ও দেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহত গোলাপ হোসেন ওই গ্রামের আতিক ইসলামের ছেলে।

ঈদের দিন খাবার খেয়ে গোলাপ হোসেন নিজ কক্ষে ঘুমিয়ে পড়েন। অনেক বেলা হলেও তাকে উঠতে না দেখে পরিবারের লোকজন ঘরের ভেতরে রক্ত দেখতে পান। পরে এলাকার লোকজন খোঁজাখুঁজি করলে বাড়ির ৫০০ গজ দূরে একটি পরিত্যক্ত জায়গায় মাটি খোঁড়া দেখতে পায়। সেই মাটি খুঁড়ে হাত দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মাটির নিচে পুঁতে রাখা মাথাবিহীন মরদেহ উদ্ধার করে। এর পর বাড়ি থেকে প্রায় ২৫০ মিটার দূরে একইভাবে মাটি খুঁড়ে মাথা উদ্ধার করা হয়। এই ঘটনায় সৎমা ও সৎ ভাইসহ ৩ জনকে থানায় আটক করে নিয়ে যায় পুলিশ।

ওসি এসএম মোস্তাফিজুর রহমান জানান, সংবাদ পেয়ে বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে নিহতের শয়নকক্ষসহ বিভিন্ন স্থান থেকে বেশ কিছু আলামত উদ্ধার করা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে বোঝা যাচ্ছে, তাকে শয়নকক্ষেই গলা কেটে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সৎমা, সৎ ভাইসহ ৩ জনকে আটক করা হয়েছে। মরদেহের সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করে ময়নাতদন্তের জন্য এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। ওসি জানান, বিষয়টির তদন্ত করে হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদ্ঘাটন করা হবে।