সেতু ভেঙে সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন

প্রকাশ: ১৫ আগস্ট ২০১৯      

আনোয়ার হোসেন মিন্টু, জামালপুর

ঁজামালপুরের ইসলামপুরে ফুলকারচর এলাকায় একটি সেতু ভেঙে পড়ায় জামালপুরের সঙ্গে বকশীগঞ্জসহ রাজীবপুর ও রৌমারীর যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। এতে দুর্ভোগে পড়েছে ঢাকা থেকে আসা ঘরমুখো মানুষ।

মঙ্গলবার একটি ব্যাটারিচালিত ভ্যানগাড়ি সেতু পার হওয়ার সময় সেতুর দুটি স্প্যান ভেঙে পড়ে। এ সময় ভ্যানে থাকা চালকসহ পাঁচজন যাত্রী প্রায় ৩০ ফুট পানির নিচে পড়ে যান। এ সময় তারা সাঁতার কেটে তীরে উঠতে সক্ষম হন। খবর পেয়ে বকশীগঞ্জ ও জামালপুর থেকে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল এসে ভ্যানটি উদ্ধার করে।

প্রত্যক্ষদর্শী ইসমাইল হোসেন জানান, মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ব্রিজটি ভেঙে নদীতে পড়ে যায়। সঙ্গে ৪/৫ জনকে পানিতে পড়তে দেখা যায়। তবে তারা সাঁতার কেটে তীরে ওঠেন। এলাকার বাসিন্দা সোয়েব মিয়া জানান, বন্যায় সেতুটির অ্যাপ্রোচের ব্যাপক ক্ষতি হয়। অ্যাপ্রোচের মাটি সরে গেলে স্থানীয় সড়ক ও জনপথ বিভাগের তত্ত্বাবধানে সেতুটি মেরামত করা হয়। কিন্তু অ্যাপ্রোচে মাটি না থাকায় সেতুটি অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠলেও সেদিকে নজর দেয়নি সড়ক ও জনপথ বিভাগ।

এদিকে সেতুটি ভেঙে যাওয়ায় জামালপুর জেলার সঙ্গে বকশীগঞ্জ উপজেলার একমাত্র যোগাযোগ রাস্তাটি বন্ধ হয়ে গেছে। এ রাস্তা দিয়ে বকশীগঞ্জ, দেওয়ানগঞ্জ, পার্শ্ববর্তী কুড়িগ্রাম জেলার রাজীবপুর ও রৌমারীর প্রায় পাঁচ লাখ মানুষ যাতায়াত করে থাকে।

জামালপুর সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মোস্তাফিজুর রহমান জানান, জামালপুর সড়ক ও জনপথ বিভাগ নিয়ন্ত্রিত সেতুটির নির্মাণকাল ৬০-এর দশকে। এ সেতু নির্মাণ সম্পর্কিত কোনো তথ্য তাদের অফিসে নেই। তবে তিনি জানান, সেতুটি ভেঙে নতুন করে নির্মাণে ইতিমধ্যে দরপত্র আহ্বান করা হয়েছে। খুব কম সময়ের মধ্যেই ওই স্থানে সেতু নির্মাণ করা হবে। বিকল্প সেতু নির্মাণ করে রাস্তাটি স্বাভাবিক করতে সপ্তাহখানেক সময় লাগবে বলে তিনি জানান।