শেরপুরে বাবার হাতে ছেলে খুন

প্রকাশ: ২৫ আগস্ট ২০১৯

শেরপুর প্রতিনিধি

জমি ও পেনশনের টাকা নিয়ে বিরোধের জেরে সাবেক কারারক্ষী মো. মোসলেম উদ্দিন (৬৫) তার ছেলে শফিকুল ইসলামকে (৩৫) দা দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করেছে। মোসলেম শেরপুর সদর উপজেলার চরমোচারিয়া ইউনিয়নের মাছপাড়া গ্রামের নয়মুদ্দিন মণ্ডলের ছেলে। গতকাল শনিবার সকালে এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ অভিযান চালিয়ে ঘাতককে গ্রেফতার ও হত্যায় ব্যবহূত দা উদ্ধার করেছে। পুলিশ সুপার কাজী আশরাফুল আজীম ও শত শত গ্রামবাসীর সামনে সে হত্যার দায় স্বীকার করেছে।

মোসলেম উদ্দিন তিন বিয়ে করেছে। তার বড় ছেলে নিহত শফিকুল ইসলামও দুই বিয়ে করেছে। চার একর আবাদি জমি ও পেনশনের টাকা ভাগবাটোয়ারা নিয়ে অনেক দিন ধরে বাবা- ছেলের মধ্যে দ্বন্দ্ব চলছিল। সকালে ছেলে ধানক্ষেতে আমন ধানের চারা রোপণ করছিল। পাশেই পাটক্ষেতে পাট কাটছিল বাবা মোসলেম উদ্দিন। এ সময় ছেলে বাবার কাছে দুই একর জমি দাবি করে এবং পেনশনের টাকার ভাগ চায়। এ নিয়ে তর্ক-বিতর্কের একপর্যায়ে বাবা উত্তেজিত হয়ে হাতে থাকা দা দিয়ে ছেলের ঘাড়ে কোপ দেয়। প্রথম কোপে ছেলে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। ফের কোপ দিলে তা গলায় লেগে ঘটনাস্থলেই মারা যায় শফিকুল। ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে শেরপুরের পুলিশ সুপার কাজী আশরাফুল আজীম বলেন, ঘটনাটি খুবই দুঃখজনক, মর্মান্তিক। আমাদের সমাজে মূল্যবোধের যে অবক্ষয় চলছে, এ হত্যাকাণ্ড তার প্রমাণ। সামান্য অর্থ ও বিত্তের জন্য বাবা ছেলেকে ছাড় দিচ্ছে না। ছেলে বাবাকে ছাড় দিচ্ছে না।