ভাঙ্গুড়ায় স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যা স্বামী পলাতক

প্রকাশ: ২৫ আগস্ট ২০১৯

পাবনা অফিস

পাবনার ভাঙ্গুড়ায় তৃষা খাতুন নামের এক গৃহবধূকে প্রথমে পিটিয়ে হত্যা ও পরে তার মুখে বিষ ঢেলে আত্মহত্যা বলে চালিয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। শনিবার উপজেলার ভাঙ্গুড়া ইউনিয়নের চরভাঙ্গুড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর পরিবারের লোকজন তাকে তৃষাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। তৃষা ওই গ্রামের মো. আতাহার আলীর স্ত্রী ও একই উপজেলার পারভাঙ্গুড়া গ্রামের কোরবান আলীর মেয়ে। এদিকে ঘটনার পর থেকেই তার স্বামী পলাতক রয়েছে।

প্রায় ৪ বছর আগে তৃষা খাতুনের চরভাঙ্গুড়া গ্রামের আতাহারের সঙ্গে পরিবারিকভাবে বিয়ে হয়। বিয়ের পর দুই বছর আগে স্বামী মালয়েশিয়া গিয়েছিল। ২৩ আগস্ট বিদেশ থেকে বাড়িতে আসে এবং তার পরদিনই এমন ঘটনা ঘটল।

তৃষার বাবা কোরবান আলী অভিযোগ করে বলেন, তার জামাতা আতাহার আলী ঘটনার দিন তুচ্ছ কারণে তার মেয়ের মাথায় এবং কানের ওপর লাঠি দিয়ে আঘাত করে। এতে সে জ্ঞান হারিয়ে ফেলে এবং তার নাক-মুখ দিয়ে ফ্যানা উঠতে থাকে। অবস্থা বেগতিক দেখে পাষণ্ড স্বামী আতাহার তার স্ত্রী তৃষার মুখে বিষ ঢেলে দিয়ে আত্মহত্যা করেছে বলে প্রচার করে।

ঘটনার বিষয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. হালিমা খানম বলেন, চরভাঙ্গুড়া এলাকা থেকে তৃষা নামক এক গৃহবধূকে মৃত অবস্থায় দুপুরের দিকে হাসপাতালে নিয়ে এসেছিল।

ভাঙ্গুড়া থানার ওসি মো. মাসুদ রানা বলেন, খবর পেয়ে সন্ধ্যায় থানায় তৃষার লাশ নিয়ে আসা হয় এবং ময়নাতদন্তের জন্য পাবনা হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।