আশুগঞ্জে সংবাদ সম্মেলন যুবলীগের নবগঠিত কমিটি বাতিলের দাবি

প্রকাশ: ২৬ আগস্ট ২০১৯      

আশুগঞ্জ (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধি

আশুগঞ্জ উপজেলা যুবলীগের নবগঠিত আহ্বায়ক কমিটিকে অবৈধ, বিতর্কিত ও গঠনতন্ত্রবিরোধী আখ্যা দিয়ে তা বাতিলের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছেন বিলুপ্ত কমিটির নেতৃবৃন্দ। রোববার সকালে আশুগঞ্জ প্রেস ক্লাবে এ সংবাদ সম্মেলন হয়। এতে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন বিলুপ্ত কমিটির আহ্বায়ক জিয়াউদ্দিন খন্দকার।

লিখিত বক্তব্যে তিনি দাবি করেন, কেন্দ্রীয় যুবলীগের নির্দেশনা মতে, তিন মাসের মধ্যে উপজেলার সব ইউনিয়ন ও ইউনিটের পূর্ণাঙ্গ কমিটি সম্পন্ন করা হয়। পূর্ণাঙ্গ উপজেলা কমিটি গঠনে সম্মেলন করতে কাউন্সিলর লিস্ট কেন্দ্রীয় যুবলীগের দপ্তর সম্পাদকের কাছে জমা দেওয়া হয়। কিন্তু জেলা যুবলীগের সভাপতি শাহানুর ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম ফেরদৌস সম্মেলনের তারিখ না দেওয়ায় তা সম্ভব হয়নি। অথচ এ অভিযোগে গত ২৪ জুলাই একটি বিশেষ মহলের প্রতি দুর্বল হয়ে উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক কমিটি বিলুপ্ত ও বিএনপি-জাতীয় পার্টির নেতাদের সন্তান দিয়ে একটি বিতর্কিত কমিটি গঠন করে জেলা যুবলীগ। আগামী ৩১ আগস্টের মধ্যে এই কমিটি বাতিলের দাবি জানান তারা। অন্যথায় সেপ্টেম্বর থেকে লাগাতার আন্দোলন শুরুর ঘোষণা দেন।

জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম ফেরদৌস অভিযোগ মিথ্যা দাবি করে বলেন, তারা কোনো ইউনিয়ন কমিটি করতে পারেনি, চার বছরে কোনো মিটিং করতে পারেনি। এ ছাড়া তাদের বিরুদ্ধে জেলা ও কেন্দ্রে দলীয় শৃঙ্খলাবিরোধী অভিযোগ রয়েছে।

এ সময় উপজেলা যুবলীগের সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক শাহীন আলম বকসী, উপজেলা শ্রমিক লীগের সহসভাপতি কামাল মুন্সি, সাধারণ সম্পাদক আবু মুছা, যুবলীগ নেতা হাসানুজ্জামানসহ বিভিন্ন ইউনিয়ন যুবলীগের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, ২০১৪ সালে জিয়াউদ্দিন খন্দকারকে আহ্বায়ক করে ৩৩ সদস্যবিশিষ্ট কমিটি অনুমোদন দেয় কেন্দ্রীয় যুবলীগ। নির্ধারিত সময়ে সম্মেলন করতে না পারা ও সাংগঠনিক শৃঙ্খলাবিরোধী বিভিন্ন অভিযোগে ওই কমিটি বিলুপ্ত করে গত ২৪ জুলাই সাইফুর রহমান মনিকে আহ্বায়ক করে ৩৭ সদস্যের আহ্বায়ক কমিটি ঘোষণা করে জেলা যুবলীগ।