গোপালগঞ্জে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে স্কুলছাত্রকে হত্যা

প্রকাশ: ২৬ আগস্ট ২০১৯      

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি

গোপালগঞ্জে নিখোঁজের দু'দিন পর স্যামুয়েল সরকার (১১) নামে এক স্কুলছাত্রের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গতকাল রোববার দুপুরে মুকসুদপুর উপজেলার ননীক্ষীর ইউনিয়নের কৃষ্ণনগর গ্রামের একটি পুকুর থেকে সিন্ধিয়াঘাট ফাঁড়ির পুলিশ এ লাশ উদ্ধার করে। সে উপজেলার কলিগ্রামের দানিয়েল সরকারের ছেলে ও কার্লভেড়ী অ্যাপস্টরিক মিশনারিজ স্কুলের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র ছিল। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে উপজেলার কলিগ্রামের প্রভাষ মজুমদারের ছেলে রিংকু মজুমদারকে (৩০) আটক করেছে পুলিশ। পরে রিংকুর ফাঁসির দাবিতে কলিগ্রামে বিক্ষোভ মিছিল করেছেন এলাকাবাসী।

সিন্ধিয়াঘাট পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক আবুল বাশার জানান, গত শুক্রবার সকাল ৮টার দিকে স্যামুয়েলকে পাখি শিকারের কথা বলে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যায় প্রতিবেশী রিংকু। এরপর সে বাড়ি ফিরে না আসায় বিভিন্ন স্তানে খোঁজ করেও তার সন্ধান মেলেনি। পরে স্যামুয়েলের বাবা দানিয়েল সরকার সিন্ধিয়াঘাট পুলিশ ফাঁড়িতে একটি অভিযোগ করেন। এ ঘটনায় পুলিশ রিংকু মজুমদারকে আটক করে। পরে রিংকুর স্বীকারোক্তিতে রোববার দুপুরে ওই পুকুর থেকে লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গোপালগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। লাশের মুখে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

নিহতের মা জুলিয়া টিয়া সরকার বলেন, গত শুক্রবার সকাল ৮টার দিকে আমার ছেলে স্যামুয়েলকে প্রতিবেশী রিংকু মজুমদার পাখি শিকার করার কথা বলে ডেকে নিয়ে যায়। পরে ছেলে আর ফিরে আসেনি। কিন্তু রিংকুকে এ ব্যাপারে জিজ্ঞাসাবাদ করলে সে এলোমেলো কথা বলতে থাকে। আমার একমাত্র ছেলেকে রিংকু হত্যা করেছে। আমি এ হত্যার বিচার চাই।

মুকসুদপুর থানার ওসি মোস্তফা কামাল পাশা বলেন, অভিযুক্ত রিংকুকে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। এ ব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে।