যুক্তরাষ্ট্রে গুলিতে নিহত রিয়েলের লাশ দ্রুত দেশে আনার দাবি

প্রকাশ: ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৯      

গাজীপুর প্রতিনিধি

যুক্তরাষ্ট্র থেকে আগামী ডিসেম্বরে দেশে ফিরে বিয়েটা সম্পন্ন করার কথা ছিল ফিরোজ উল আমীন রিয়েলের। কিন্তু সেটা আর হলো না। স্বপ্নটা স্বপ্নই থেকে গেল। গত শনিবার ভোরে আমেরিকার লুইজিয়ানা অঙ্গরাজ্যের একটি গ্যাস স্টেশনের ভেতরে সন্ত্রাসীদের গুলিতে প্রাণ হারান গাজীপুর মহানগরের ইটাহাটা এলাকার রিয়েল।

ছেলেকে হারিয়ে মা ফেরদৌসী আমীনের কান্না থামছেই না। কোনো সান্ত্বনার বাণীই পৌঁছছে না সন্তানহারা এই মায়ের কানে। উচ্চশিক্ষা অর্জন করতে গিয়ে সন্ত্রাসীদের হাতে এভাবে মৃত্যুবরণকে কোনোভাবেই মেনে নিতে পারছেন না রিয়েলের মা-বোন কিংবা স্বজনরা। প্রতিবেশীরা ভিড় করছেন বাড়িতে। সান্ত্বনা দিতে গিয়ে নিজেরাই সংবরণ করতে পারছেন না চোখের জল।

গত বছরের গোড়ার দিকে স্কলারশিপ নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের লুইজিয়ানা স্টেট ইউনিভার্সিটিতে সাইবার সিকিউরিটির ওপর পিএইচডি করতে যান রিয়েল। গবেষণার পাশাপাশি তিনি একটি গ্যাস স্টেশনে ক্লার্ক হিসেবে খণ্ডকালীন চাকরি করতেন। স্থানীয় সময় শনিবার সাড়ে ৩টায় এক বন্দুকধারী ওই গ্যাস স্টেশনে গিয়ে রিয়েলকে গুলি করে ক্যাশ থেকে টাকা লুট করে নিয়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই মারা যান তিনি। স্বজনরা দাবি করেন, রিয়েলের লাশটি যেন দ্রুত দেশে আনা হয় সে ব্যবস্থা করার জন্য সরকারের প্রতি অনুরোধ জানান তার পরিবার।