পদ্মা সেতুর ২৪০০ মিটার দৃশ্যমান

প্রকাশ: ২০ নভেম্বর ২০১৯      

মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি

মুন্সীগঞ্জের মাওয়া প্রান্তে পদ্মা সেতুর ১৬ ও ১৭ নম্বর খুঁটির ওপর বসানো হয়েছে '৩-ডি' নম্বরের ১৬তম স্প্যান (সুপার স্ট্রাকচার)।

গতকাল মঙ্গলবার দুপুর ১টা ১০ মিনিটে এ স্প্যান বসানোর পর পদ্মা সেতুর মূল অবকাঠামো দুই হাজার ৪০০ মিটার দৃশ্যমান হয়। ধূসর রঙের ১৫০ মিটার দৈর্ঘ্যের ও তিন হাজার ১৪০ টন ওজনের স্প্যানটিকে বিশ্বের সবচেয়ে ক্ষমতাসম্পন্ন তিন হাজার ৬০০ টন ধারণক্ষমতার ক্রেনবাহী ভাসমান জাহাজ 'তিয়ান ই'র মাধ্যমে মঙ্গলবার সকালে দুই খুঁটির মধ্যবর্তী সুবিধাজনক স্থানে নোঙর করা হয়। এরপর দুপুর ১টার দিকে পজিশনিং করে ইঞ্চি মেপে স্প্যানটি তোলা হয় খুঁটির উচ্চতায়। রাখা হয় দুই খুঁটির বেয়ারিংয়ের ওপর। স্প্যান বসানোর জন্য উপযোগী সময় এবং সব ধরনের পরীক্ষা-নিরীক্ষা সফলভাবে সম্পন্ন হওয়ায় দুপুর সোয়া ১টার মধ্যেই স্প্যানটিকে দুই খুঁটির ওপর স্থাপন করা সম্ভব হয় বলে পদ্মা সেতু প্রকল্পের দায়িত্বশীল একাধিক নির্বাহী প্রকৌশলী নিশ্চিত করেন। এর আগে '৩-ডি' নম্বরের ১৬তম স্প্যানটি (সুপার স্ট্রাকচার) কুমারভোগ কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ডের জেটি থেকে অদূরেই ১৬ ও ১৭ নম্বর খুঁটির উদ্দেশে রওনা হয় ক্রেনবাহী ভাসমান জাহাজ 'তিয়ান-ই'। এর আগে ২২ অক্টোবর স্থায়ীভাবে বসানো হয়েছিল ১৫তম স্প্যান।

পদ্মা সেতুর প্রকৌশলীরা আরও জানান, মূল সেতুর সব খুঁটির পাইল ড্রাইভের কাজ সমাপ্ত হয়েছে। ইতোমধ্যে ৪২টি খুঁটির মধ্যে ৩২টির কাজ সম্পন্ন হয়ে গেছে। চীন থেকে মাওয়ায় কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ডে এ পর্যন্ত ৩১টি স্প্যান এসেছে। যার মধ্যে ১৬টি স্প্যান স্থাপন করা হয়েছে খুঁটির ওপর। এ ছাড়া চারটি স্প্যান মাওয়ার কুমারভোগ কন্সট্রাকশন ইয়ার্ডে ও ৯টি স্প্যান পদ্মার চর এলাকায় স্থাপনের অপেক্ষায় রাখা হয়েছে।