দীঘিনালায় শিশু ধর্ষণ পুলিশ সদস্য গ্রেপ্তার

খুলনায় আরেক পুলিশের জবানবন্দি

প্রকাশ: ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০

খুলনা ব্যুরো ও দীঘিনালা (খাগড়াছড়ি) প্রতিনিধি

খাগড়াছড়ির দীঘিনালায় ষষ্ঠ শ্রেণির শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের অভিযোগে নাজমুল হাসান (২৩) নামে এক পুলিশ কনস্টেবলকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। শিশুটির বাবা দীঘিনালা থানায় মামলা করার পর গত সোমবার রাতে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। গতকাল মঙ্গলবার তাকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়। তার বাড়ি কুমিল্লার দেবিদ্বার উপজেলার গোপালনগর গ্রামে। এদিকে, খুলনার তেরখাদা উপজেলায় গত সোমবার শিশু ধর্ষণের ঘটনায় গ্রেপ্তার পুলিশ কনস্টেবল রেজাউল শিকদার আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। গতকাল মঙ্গলবার খুলনার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্টেট আদালতে জবানবন্দি দেওয়ার পর তাকে খুলনা জেলা কারাগারে পাঠানো হয়। দীঘিনালা থানার ওসি উত্তম চন্দ্র দেব জানান, কনস্টেবল নাজমুল হাসানকে গ্রেপ্তারের পর জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। ধর্ষণের শিকার শিক্ষার্থীকে পরীক্ষার জন্য জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এদিকে, খুলনার তেরখাদা থানার ওসি স্বপন কুমার রায় জানান, গত সোমবার সকাল ১১টার দিকে চতুর্থ শ্রেণি পড়ূয়া ওই শিশুকে ধর্ষণ করেন রেজাউল শিকদার। এ ঘটনায় শিশুটির বাবা মামলা করেন। ওইদিন বিকেলেই উপজেলার মধুপুর ইউনিয়নের মোকামপুর গ্রামের রেজাউল শিকদারকে (২৩) গ্রেপ্তার করা হয়। তিনি নাটোর পুলিশ লাইনে কর্মরত। সম্প্রতি ছুটিতে বাড়িতে যান তিনি।

খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওসিসির সমন্বয়ক ডা. অঞ্জন কুমার চক্রবর্তী বলেন, শিশুটির রক্তক্ষরণ বন্ধ হয়েছে। শারীরিক অবস্থা উন্নতির দিকে। সুস্থ হতে আরও সময় লাগবে।