বাংলাদেশ পুলিশের সহায়তায় পাকা ঘর পাচ্ছেন পটুয়াখালীর দশমিনা উপজেলার বহরমপুর ইউনিয়নের বগুড়া গ্রামের হতদরিদ্র আব্দুল খালেক মৃধা (৬৫)। স্থানীয় সমাজসেবক ও ব্যবসায়ী মাইনুল ইসলাম বাচ্চু খালেক মৃধার নামে ৩ শতাংশ জমির কবলা দলিল গত বৃহস্পতিবার হস্তান্তর করেন।

দলিল হস্তান্তর অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন দশমিনা থানার ওসি (তদন্ত) আব্দুস সালাম মোল্লা, বহরমপুর ইউনিয়নের বিট পুলিশিং কর্মকর্তা এসআই আব্দুর রহিম প্রমুখ। খালেক মৃধা মানুষের বাড়িতে দিনমজুর হিসেবে কাজ করে সংসার চালাতেন। প্রায় ১৫ বছর আগে স্ত্রী মারা গেলে অন্যের জমিতে খড়কুটার ঘরে একমাত্র মেয়ে মাসেদা বেগমকে নিয়ে বসবাস করতেন। কিছুদিন আগে এলাকাবাসী চাঁদা তুলে মাসেদাকে বিয়ে দিলে খুপরি ঘরে খেয়ে না খেয়ে কাটছিল খালেকের জীবন। খালেক মৃধা বলেন, কখনও ভাবিনি পাকা ঘরে শেষ জীবনটা কাটাতে পারব।

দশমিনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. জসীম জানান, পুলিশ সদর দপ্তরের নির্দেশে খালেকের জন্য দুই রুমের পাকা ঘর, রান্নাঘর ও টয়লেটের ব্যবস্থা করা হয়েছে। ঘর নির্মাণের সব ব্যয়ভার বাংলাদেশ পুলিশ বিভাগ বহন করবে। তিনি জানান, শিগগির ঘরের নির্মাণ কাজ শুরু হবে।

মন্তব্য করুন