কিশোরগঞ্জের নিকলীতে নৌকায় আগুন লেগে জহুর উদ্দিন নামে এক মাঝি মারা গেছেন। নৌকায় থাকা তার ছেলে বাপ্পীসহ গুরুতর আহত হয়েছেন চারজন। তাদের আশঙ্কাজনক অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। তারা সবাই নৌকায় ঘুমিয়ে ছিলেন। আহত অন্যরা হলেন- আবুল হাশেম, তারেক মিয়া ও গিয়াস উদ্দিন।

শুক্রবার ভোরে উপজেলার সিংপুর ইউনিয়নের বাজারঘাটে এই ঘটনা ঘটে। মারা যাওয়া জহুর উদ্দিন নিকলী সদর ইউনিয়নের মগলহাটি গ্রামের মৃত করিম উদ্দিনের ছেলে। আহত আবুল হাশেম একই ইউনিয়নের নগর গ্রামের আবু সামার ছেলে, তারেক মিয়া মীরহাটি গ্রামের ইসরাফিলের ছেলে ও গিয়াস উদ্দিন জারইতলা ইউনিয়নের সাজনপুর গ্রামের জহির উদ্দিনের ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, বৃহস্পতিবার সিংপুর বাজারে পৌষ মেলা ছিল। মেলা শেষে জহুর উদ্দিন তার ছেলে ও সঙ্গে থাকা লোকজন নিয়ে সিংপুর বাজারঘাটে ধনু নদীতে নৌকায় ঘুমিয়ে পড়েন।

শুক্রবার ভোরে নৌকায় আগুন জ্বলতে দেখে স্থানীয়রা গিয়ে নৌকার ভেতর থেকে দগ্ধ পাঁচজনকে উদ্ধার করেন। তাদের বাজিতপুরের জহুরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল নিয়ে যাওয়ার পর ঢাকায় পাঠানো হয়। ঢাকায় নেওয়ার পথে মাঝি জহুর উদ্দিনের মৃত্যু হয়। স্থানীয়দের ধারণা, রাতে মশার কয়েল থেকে কম্বলে আগুন লাগে। পরে নৌকায় থাকা রান্নার কাজে ব্যবহূত গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ম্ফোরণে এ হতাহতের ঘটনা ঘটে।

মন্তব্য করুন