গোপন ক্যামেরায় নারীর গোসলের ভিডিও ধারণ ও দম্পতির অন্তরঙ্গ মুহূর্তের ভিডিও ধারণের চেষ্টার অভিযোগে এক ছাত্রলীগ নেতাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গ্রেপ্তার ছাত্রলীগ নেতা হলো উপজেলার ফতেপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক হিমেল সিকদার। তাকে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলার পর বৃহস্পতিবার আদালতের মাধ্যমে টাঙ্গাইল কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

এদিকে হিমেল সিকদারকে ফতেপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকের পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। বিষয়টি উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সাদ্দাম হোসেন খান ও সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম সিয়াম স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে জানানো হয়। একই সঙ্গে তাকে স্থায়ীভাবে বহিস্কারের জন্য কেন্দ্রীয় কমিটিতে সুপারিশ করা হয়েছে।

হিমেল সিকদার ফতেপুর ইউনিয়নের থলপাড়া গ্রামের হাফিজুর রহমানের ছেলে। বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে উপজেলা সদরের ইউনিয়নপাড়া এলাকার একটি বাসা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

মির্জাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ রিজাউল হক দিপু জানান, হিমেল ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছে। তার মোবাইল ফোন ও গোপন ক্যামেরা জব্দ করা হয়েছে। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে নিয়মিত মামলা দিয়ে তাকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

মন্তব্য করুন