কোটালীপাড়া উপজেলায় রাস্তা নির্মাণকাজে বাধা দেওয়ায় এলাকাবাসীর মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। অন্যদিকে, নির্ধারিত সময়ের মধ্যে এ রাস্তা নির্মাণ করা না হলে বরাদ্দকৃত অর্থ ফেরত যাবে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান।

উপজেলার কলাবাড়ী ইউনিয়নের সাবেক মেম্বার চিত্ত সরকারের বাড়ি থেকে উপেন্দ্রনাথ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় হয়ে রাজৈর-কোটালীপাড়া সড়ক পর্যন্ত এক হাজার ৬০০ মিটার মাটির রাস্তা নির্মাণের জন্য ৬৫ লাখ টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। কয়েক দিন আগে এ রাস্তা নির্মাণের কাজ শুরু হয়। কিন্তু চিত্ত সরকারের বাড়ি থেকে উত্তর দিকে ৩০০ মিটার রাস্তা নির্মাণের পর স্থানীয় নীরদ বালা ও রনদা বালা এ রাস্তা নির্মাণকাজে বাধা দেন।

কলাবাড়ী ইউনিয়নের সাবেক মেম্বার চিত্ত সরকার বলেন, 'রাস্তাটি নির্মাণ হলে এলাকার প্রায় ৫/৭টি গ্রামের কয়েক হাজার লোকের স্কুল-কলেজ, হাটবাজারে যেতে সুবিধা হবে। কিন্তু আমাদের এলাকার নীরদ বালা ও রনদা বালা রাস্তা নির্মাণে বাধা দেওয়ায় আমাদের অনেক দিনের স্বপ্ন মুখ থুবড়ে পড়েছে। আমরা চাই, দ্রুততম সময়ের মধ্যে যেন এ রাস্তা নির্মাণ করা হয়।'

কলাবাড়ী ইউপি চেয়ারম্যান মাইকেল ওঝা বলেন, 'নীরদ বালা ও রনদা বালা অবৈধভাবে রাস্তা নির্মাণকাজে বাধা দিয়েছেন।

এদিকে অভিযুক্ত নীরদ বালা বলেন, 'এটা কোনো সরকারি হালট নয়। এটা আমাদের পৈতৃক জায়গা। তাই এখানে রাস্তা নির্মাণে বাধা দিয়েছি।'

ইউএনও মাহফুজুর রহমান বলেন, তিনি বিষয়টি দেখার জন্য সংশ্নিষ্ট ইউনিয়নের তহশিলদারকে নির্দেশ দিয়েছেন।

মন্তব্য করুন