বৃদ্ধকে কুপিয়ে জখম, ঘর ভাঙচুর লুটপাট

প্রকাশ: ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১

ভাঙ্গা (ফরিদপুর) প্রতিনিধি

ফরিদপুরের ভাঙ্গায় শত্রুতার জেরে মোস্তফা মুন্সী নামে এক বৃদ্ধকে কুপিয়ে জখম করে তার বসতঘর ভাঙচুর ও লুটপাট করেছে প্রতিপক্ষ। এ সময় ওই বৃদ্ধকে রক্ষায় তার পরিবারের সদস্য ও প্রতিবেশীরা এগিয়ে এলে তাদের ওপরও হামলা ও মারধরের ঘটনা ঘটে। গত রোববার রাতে উপজেলার আলগী ইউনিয়নের চরকান্দা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

মোস্তফা ছাড়াও অন্য আহতরা হলেন- তার দুই ছেলে ইব্রাহীম মুন্সী ও রুহুল আমিন মুন্সী, চাচাতো ভাই বাশার মুন্সী ও নিশার মুন্সী, ভাতিজা আবু সাঈদ।

স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে ভাঙ্গা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। গুরুতর আহত মোস্তফা মুন্সীকে ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায়

বৃদ্ধের বড় ছেলে ইব্রাহীম মুন্সী বাদী হয়ে সোমবার ভাঙ্গা থানায় একটি মামলা করেছেন।

আহত ইব্রাহীম জানান, শত্রুতার জেরে তার বাবার সঙ্গে প্রতিপক্ষ আলী মাতবর গংয়ের শনিবার রাতে কথা কাটাকাটি হয়। এ নিয়ে রোববার রাতে স্থানীয়দের সহায়তায় একটি সালিশ বৈঠক হয়। সালিশ শেষে প্রতিপক্ষ আলী মাতবর, ওমর আলী মোল্লা, মোহসীন মোল্লা, এমরান মাতবরসহ দলবল নিয়ে তাদের (ইব্রাহীম) বসতবাড়িতে এসে দেশি অস্ত্র দিয়ে হামলা চালায়। এ সময় তারা মোস্তফা মুন্সীকে কুপিয়ে জখম ও অন্যদের বেধড়ক মারধর করে এবং বসতঘরে ভাঙচুর ও লুটপাট করে পালিয়ে যায়।

এ বিষয়ে প্রতিপক্ষ আলী মাতবর ও তার ছেলে ইমরানের

মোবাইল ফোনে বারবার যোগাযোগ করলেও তারা এ বিষয়ে কথা বলতে রাজি হননি।

থানার উপ-পরিদর্শক আমিনুল ইসলাম হামলার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এ বিষয়ে একটি মামলা করা হয়েছে। তদন্ত

সাপেক্ষে যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।