ঝরেপড়া শিশুদের ফিরিয়ে আনতে কর্মশালা

প্রকাশ: ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১

কালীগঞ্জ (ঝিনাইদহ) প্রতিনিধি

কখনও বিদ্যালয়ে যায়নি বা প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে ঝরে গেছে এমন আট থেকে ১৪ বছর বয়সী শিশুদের শিক্ষার মূলধারায় ফিরিয়ে আনতে কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ঝিনাইদহ জেলা উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা ব্যুরোর সহযোগিতায় গতকাল মঙ্গলবার সকালে কালীগঞ্জ উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত কর্মশালায় সভাপতিত্ব করেন কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সূবর্ণা রানী সাহা।

কর্মশালার শুরুতেই উপজেলা পরিষদের সব দপ্তরের কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে ওই প্রকল্পের সার্বিক বিষয় তুলে ধরে স্লাইড প্রদর্শন করা হয়।

এ কর্মসূচি বাস্তবায়নে উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা ব্যুরো এবং প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীন আউট অব স্কুল চিলড্রেন এডুকেশন প্রোগ্রাম নামে শিগগিরই একটি ব্যতিক্রমী স্কুল চালু হবে। এটি বাস্তবায়নে সহায়ক সংস্থার দায়িত্বে রয়েছে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন সৃজনী বাংলাদেশ।

সৃজনী বাংলাদেশের আয়োজনে প্রকল্পটির বিষয়ে জানাতে কর্মশালায় বিশেষ অতিথি ছিলেন উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা ব্যুরোর ঝিনাইদহ জেলার সহকারী পরিচালক শেখ মো. সুরুজ্জামান। তিনি বলেন, ঝরে পড়া ও স্কুলে না যাওয়া শিশুদের জরিপের মাধ্যমে তালিকা করে শিক্ষা প্রদানের ব্যবস্থা করা হচ্ছে। এ উপজেলার শহর ও বিভিন্ন ইউনিয়নে ঘর ভাড়া নিয়ে ৭০টি স্কুল চালু করা হবে। ওই বিদ্যালয়ের শিশু শিক্ষার্থীদের বিনামূল্যে বই, খাতা-কলম, ব্যাগ, স্কুল ড্রেসসহ মাসিক অনুদানও দেওয়া হবে। প্রকল্পটি বাস্তবায়নে সবার সহযোগিতা প্রয়োজন। এ সময় প্রকল্পের বিভিন্ন বিষয়ের ওপর আলোকপাত করে আরও বক্তব্য দেন উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সালমা খাতুন, মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মধুসূধন পাল, সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা সাইদুর রহমান, পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. তরুণ কুমার দাস প্রমুখ।