১৩ বছর পর ধর্ষণ মামলায় যাবজ্জীবন

প্রকাশ: ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১

নোয়াখালী সংবাদদাতা

১৩ বছর পর ধর্ষণ মামলার পলাতক আসামি মো. শহীদকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড, ২০ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও তিন মাস কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। গতকাল মঙ্গলবার নোয়াখালীর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-১-এর বিচারক জয়নাল আবদীন এ রায় দেন।

২০০৭ সালের ২ মার্চ চাটখিলের রামনারায়ণপুর গ্রামের মো. শহীদ ওই ছাত্রীকে ডাক্তারের কাছে নিয়ে যাওয়ার কথা বলে কৌশলে নিজ বাড়িতে নিয়ে যায়। এরপর তাকে জোর করে বিয়ে করার চেষ্টা করে। ওই ছাত্রী বিয়েতে রাজি না হওয়ায় অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে তাকে ধর্ষণ করে। ঘটনাটি স্থানীয়ভাবে মীমাংসার চেষ্টা করা হয়। বিচার না পেয়ে ছাত্রী নিজেই বাদী হয়ে ওই বছরের ২৪ জুন চাটখিল থানায় ধর্ষণ মামলা করে। ২০ আগস্ট চাটখিল থানার এসআই ফারুক মৃধা অভিযুক্ত শহীদের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। ১৩ বছর আদালতে মামলাটির সাক্ষ্য গ্রহণ ও যুক্তিতর্ক চলে। শুনানি শেষে গতকাল মঙ্গলবার এ রায় দেন বিচারক।

আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে মামলা পরিচালনাকারী সরকারি কৌঁসুলি মামুনুর রশীদ লাভলু বিষয়টি

নিশ্চিত করেন।