ভোলা পৌরসভার নির্বাচনে গণসংযোগকালে দুই কাউন্সিলর প্রার্থীর কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে সহিংসতার ঘটনায় পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি পালিত হয়েছে। এতে একে অন্যের বিরুদ্ধে নির্বাচনী পরিবেশ নষ্ট করার অভিযোগ উঠেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে ভোলা প্রেস ক্লাবের সামনে মানববন্ধন করে নারী কর্মীদের ওপর হামলার বিচার দাবি করেন ২ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী মিজানুর রহমানের সমর্থকরা। দুপুরে মিজানুরের বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন করে অপ্রীতিকর ঘটনা সাজিয়ে নির্বাচনী পরিবেশ উত্তপ্ত করার অভিযোগ করেন কাউন্সিলর প্রার্থী রাজীব হাসান লিপু।

কাউন্সিলর প্রার্থী মিজানুর রহমান জানান, তার নারী কর্মীরা ২৩ ফেব্রুয়ারি ওয়ার্ডের অফিসারপাড়া মসজিদ এলাকায় গণসংযোগকালে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী রাজীব হাসান লিপুর লোকজন হামলা চালিয়ে কয়েকজনকে আহত করে। আহতরা সদর হাসপাতালে চিকিৎসা নেন। হুমকি-ধমকি দিয়ে নির্বাচনী পরিবেশ নষ্ট করার পাঁয়তারা করছে। হামলার প্রতিবাদ ও বিচার দাবিতে গতকাল ভোলা প্রেস ক্লাবের সামনে মানববন্ধন করে তার সমর্থকরা।

এদিকে দুপুর ১টায় রাজীব হাসান লিপু ভোলা প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে বহিরাগত নারীদের এনে নির্বাচনের সুষ্ঠু পরিবেশ বানচালের অভিযোগ করেন প্রতিদ্বন্দ্বী মিজানুর রহমানের বিরুদ্ধে। তিনি অভিযোগ করেন, মিজান পৌর এলাকার পার্শ্ববর্তী ইউনিয়ন থেকে দুই থেকে আড়াইশ নারী নিয়ে অফিসারপাড়া আসেন। ওসব নারী টাকার জন্য নিজেদের মধ্যে বাগ্‌বিতণ্ডা ও হৈচৈ করে; যা ছিল সাজানো নাটক। মোবাইল ফোনে খবর পেয়ে তিনি গিয়ে তাদের ঝগড়া থামানোর চেষ্টা করেন। কোনো ধরনের হামলা ও মারধরের ঘটনা ঘটেনি।

আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি ভোলা পৌরসভার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

মন্তব্য করুন