মানিকগঞ্জে স্কুলছাত্র রাকিব হোসেন হত্যা মামলায় শাকিল আহম্মেদ মিঠু নামে অপর এক সহপাঠীকে মৃত্যুদণ্ড ও দোষী প্রমাণিত না হওয়ায় মামলার অন্য চার আসামি সবুজ মিয়া, মোহাম্মদ রকি, মোহাম্মদ আহাদ ও জনি মিয়াকে বেকসুর খালাস দিয়েছেন বিচারক। রোববার দুপুর ২টার দিকে মানিকগঞ্জের সিনিয়র দায়রা জজ আদালতের বিচারক মীর রুহুল আমিন আসামির উপস্থিতিতে এই রায় দেন। দণ্ডপ্রাপ্ত শাকিল আহম্মেদ মিঠু মানিকগঞ্জ পৌরসভার কান্দাপৌলি এলাকার আব্দুল মান্নানের ছেলে। সে বান্দুটিয়া আফতার উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির শিক্ষার্থী ছিল।

প্রেমঘটিত কারণে ২০১৮ সালের ২৭ মার্চ মোবাইল ফোনের মাধ্যমে রাকিবকে ডেকে নিয়ে কুপিয়ে জখম করে শাকিল আহম্মেদ মিঠু। খবর পেয়ে রাকিবের মা ও স্থানীয়রা গিয়ে তাকে উদ্ধার করে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নেওয়ার পথে রাকিবের অবস্থার অবনতি হলে সাভারের এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিলে দায়িত্বরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। পরদিন ২৯ মার্চ এ ঘটনায় নিহতের বাবা মো. খলিলুর রহমান বাদী হয়ে পাঁচজনকে আসামি করে সদর থানায় মামলা করেন। পুলিশ মামলার প্রধান আসামি শাকিলকে পরদিন শিবালয় থেকে গ্রেপ্তার করে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা তৎকালীন মানিকগঞ্জ সদর পুলিশ ফাঁড়ির ইন্সপেক্টর আবুল কালাম ২০১৯ সালের ২৯ মার্চ আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেন। মামলায় ২৫ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে বিচারক একজনের মৃত্যুদণ্ড ও চারজনকে বেকসুর খালাস দেন।

মন্তব্য করুন