খুলনায় বিএনপি নেতাকর্মী ভেবে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের লাঠিচার্জ করায় সদর থানার দুই এসআইকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। গতকাল বুধবার বিকেল সাড়ে ৫টায় খুলনা বিএনপি কার্যালয়ের সামনে এ ঘটনা ঘটে। সেখানে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করছিলেন আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। একপর্যায়ে তারা বিএনপি নেতা শামসুজ্জামান দুদুর কুশপুত্তলিকা দাহ করেন।

প্রত্যাহার করা দুই পুলিশ কর্মকর্তা হলেন সদর থানার এসআই মিয়া রব ও এসআই মোমিনুর রহমান।

প্রত্যক্ষদর্শী, পুলিশ ও আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, সিটি মেয়র তালুকদার আবদুল খালেককে নিয়ে অশালীন বক্তব্যের প্রতিবাদে গতকাল বিকেল ৫টায় বিক্ষোভ মিছিল এবং পিকচার প্যালেস মোড়ে শামসুজ্জামান দুদুর কুশপুত্তলিকা দাহ কর্মসূচি ঘোষণা করে নগরীর ২১ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ। নির্ধারিত সময়ে মিছিলটি শুরু হয়। এতে ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও নগর আওয়ামী লীগ নেতা শামসুজ্জামান মিয়া স্বপন, আওয়ামী লীগ সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকসহ নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

কাউন্সিলর শামসুজ্জামান মিয়া স্বপন জানান, হেলাতলা মোড় থেকে শুরু হয়ে মিছিলটি বিএনপি কার্যালয়ের সামনে পৌঁছলে যানজটের কারণে মিছিলের গতি কমে যায়। এ সময় যানজট তীব্র আকার ধারণ করলে মিছিলটি আর সামনে এগোতে পারেনি। নেতাকর্মীরা বিএনপি কার্যালয়ের সামনেই দুদুর কুশপুত্তলিকায় আগুন দিয়ে বিক্ষোভ করতে থাকে। এ সময় কয়েকজন পুলিশ সদস্য ঘটনাস্থলে এসে এলোপাতাড়ি লাঠিচার্জ শুরু করেন। পরে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মী পরিচয় দেওয়ার পর তারা চলে যায়। এটা একটা ভুল বোঝাবুঝি। সদর থানার ওসি আশরাফ হোসেন বলেন, দলীয় কার্যালয়ের সামনে অনুমতি ছাড়াই বিএনপির নেতাকর্মীরা কর্মসূচি পালন হচ্ছে ভেবে পুলিশ কর্মকর্তারা বাধা দিতে যায়। এ সময় কিছুটা ভুল বোঝাবুঝি হয়।

মন্তব্য করুন