লকডাউন চলাকালে গ্রাম ও শহরের শ্রমজীবী মানুষের জন্য কমপক্ষে এক মাসের খাদ্য ও পাঁচ হাজার টাকা প্রদান, নারায়ণগঞ্জের করোনা হাসপাতালের অনিয়ম-অব্যবস্থাপনা দ্রুত নিরসন, বেড ও আইসিইউ সংখ্যা বৃদ্ধি এবং দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি রোধ করার দাবিতে নারায়ণগঞ্জে মানববন্ধন করেছে বাম গণতান্ত্রিক জোট। সোমবার বিকেলে নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সামনে মানববন্ধনটি অনুষ্ঠিত হয়।

বাম গণতান্ত্রিক জোটের নারায়ণগঞ্জ জেলার সমন্বয়ক নিখিল দাসের সভাপতিত্বে বক্তব্য দেন কমিউনিস্ট পার্টির নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি হাফিজুল ইসলাম, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির জেলার নেতা রাশেদা বেগম, গণসংহতি আন্দোলনের জেলার সমন্বয়ক তরিকুল সুজন, সিপিবি নেতা দুলাল সাহা প্রমুখ।

নেতৃবৃন্দ বলেন, করোনাভাইরাস মোকাবিলায় সরকার আগামী ১৪ এপ্রিল থেকে সর্বাত্মক লকডাউন ঘোষণা দিয়েছে। কিন্তু গ্রাম-শহরের দরিদ্র মানুষ যারা দিন আনে দিন খায়, তাদের খাদ্যের সমস্যার সমাধান না করলে লকডাউন সফল করা যাবে না। অন্ততপক্ষে এক মাসের খাদ্য ও নগদ পাঁচ হাজার টাকা প্রত্যেক শ্রমজীবীর জন্য বরাদ্দ প্রয়োজন এবং জনগণ যাতে পায়, তাও নিশ্চিত করতে হবে।

নেতৃবৃন্দ চাল, ভোজ্যতেলসহ নিত্যপণ্যের দাম বৃদ্ধিতে ক্ষোভ প্রতাশ করে বলেন, অসৎ ব্যবসায়ী সিন্ডিকেট ভেঙে দিতে সরকার ব্যর্থ। জিনিসপত্রের দাম কমাতে সরকারের যথাযথ পদক্ষেপ চান নেতারা।

মন্তব্য করুন