ঘর থেকে বের হওয়ার রাস্তা বন্ধ করে প্রাচীর নির্মাণ করায় মই দিয়ে ঝুঁকি নিয়ে প্রাচীর পার হয়ে চালচল করতে বাধ্য হচ্ছেন একটি অসহায় পরিবারের সদস্যরা। এভাবে চলাচল করতে গিয়ে সবচেয়ে ঝুঁকির মধ্যে পড়ছে পরিবারের শিশু ও নারীরা। ঘটনাটি গফরগাঁও পৌর শহরের জন্মেজয় গ্রামে। এ অবস্থা থেকে পরিত্রাণের লক্ষ্যে অসহায় পরিবারের সদস্যরা পৌর মেয়র বরাবর লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

সরেজমিন দেখা যায়, পৌর শহরের দরিদ্র হোটেল ব্যবসায়ী নজরুল ইসলাম জন্মেজয় গ্রামের আব্দুল গণি মিয়ার কাছ থেকে তিন শতাংশ জমি ক্রয় করে একটি দোচালা টিনের ঘর নির্মাণ করে স্ত্রী-সন্তানদের নিয়ে বসবাস করছেন। প্রতিবেশী হয়ে বসবাস করার এক পর্যায়ে গণির সঙ্গে নজরুল ইসলামের তুচ্ছ ঘটনায় মনোমানিল্য হয়। এরপর থেকেই গণি ও তার ছেলে লিটন মিয়া নজরুলের বাড়ি থেকে বের হওয়ার চলাচলের রাস্তায় উঁচু প্রাচীর নির্মাণ করেন। এতে নজরুল তার পরিবারের সদস্যদের নিয়ে অবরুদ্ধ হয়ে পড়েন। ঘর থেকে বের হওয়ার জন্য বাঁশের মই বানিয়ে প্রাচীর পারাপার করতে বাধ্য হচ্ছেন নজরুলের পরিবারের সদস্যরা।

এ ব্যপারে নজরুল ইসলাম বলেন, বাড়ি নির্মাণের সময় আব্দুল গণি মিয়ার জায়গা দিয়েই আমাদের চলাচলের রাস্তা ছিল। এখন এই রাস্তার ওপর প্রাচীর নির্মাণ করায় আমরা ঝুঁকি নিয়ে মই দিয়ে প্রাচীর পার হয়ে চলাচল করতে বাধ্য হচ্ছি। বর্ষাকালে এই অঞ্চল পানিতে তলিয়ে যায়। তখন চলাচল করতে সবচেয়ে বেশি কষ্ট হয়।

গণি মিয়ার ছেলে লিটন মিয়া বলেন, আমরা আমাদের জায়গায় প্রাচীর নির্মাণ করেছি।

পৌর মেয়র এসএম ইকবাল হোসেন সুমন বলেন, অভিযোগ পেয়েছি। ঘটনাটি অমানবিক। বিষয়টি মীমাংসার ব্যবস্থা করব।

মন্তব্য করুন