গলাচিপা উপজেলার বকুলবাড়িয়া ইউনিয়নের ছোনখোলা গ্রামে রোববার বিকেলে গরুর ঘাস খাওয়াকে কেন্দ্র করে বিরোধে কৃষক শ্যামল মালাকারের বাড়িতে হামলার অভিযোগ উঠেছে। এ সময় দুমফ পলেমঘর ১০ জন আহত হয়েছেন।

শ্যামল মালাকারের অভিযোগ, তাদের একটি গরু পার্শ্ববর্তী সেলিম বেপারীর ক্ষেতের ঘাস খায়। এ নিয়ে ঝগড়ার এক পর্যায়ে সেলিম বেপারীর বাড়ির ৩০-৪০ জন তার তিনটি বসতঘরে হামলা ও ভাঙচুর চালায়। এক পর্যায়ে তারা বাড়ির মন্দির ও আশ্রমে ভাঙচুর চালিয়ে বিগ্রহ ভেঙে ফেলে। বাধা দেওয়ায় তারা রীতা রানী মালাকার, মিঠুন মালাকার, দীনেশ মালাকার, বলরাম মালকার, সবিতা রানী ও তাকে বেদম মারধর করে।

গলাচিপা থানার ওসি শওকত আনোয়ার বলেন, হামলা ও মারধরের অভিযোগ সত্য। তবে মন্দির ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেনি।

অভিযুক্ত সেলিম বেপারী পরিবারসহ আত্মগোপনে থাকায় তাদের বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

মন্তব্য করুন