পূর্ব বিরোধের জেরে ফরিদপুরের মধুখালী উপজেলার জাহাপুর ইউনিয়নের মোরারদিয়া গ্রামে দু'পক্ষের সংঘর্ষে পাঁচজন আহত হয়েছেন। এ সময় বাড়িঘরে ভাঙচুর ও লুটপাটের অভিযোগ পাওয়া গেছে। রোববার দুপুরে এ হামলার ঘটনা ঘটে। আহতদের মধ্যে দু'জনকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

মোরারদিয়া গ্রামের রইচ মোল্যা ও আওয়ামী লীগ নেতা সাবেক ইউপি সদস্য আব্দুর রব মোল্যার মধ্যে ছাগলে ধান খাওয়াকে কেন্দ্র করে আট বছর ধরে বিরোধ চলছে। এর জেরে রোববার দুপুরে দু'পক্ষ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়লে পাঁচজন আহত হন। তাদের মধ্যে গুরুতর আহত সোহান মোল্যা ও হাসান মোল্যাকে মধুখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। অন্যদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়।

রইচ মোল্যার অভিযোগ, রব মোল্যার নেতৃত্বে অর্ধশতাধিক লোক দেশি অস্ত্র নিয়ে তাদের বাড়িতে বাড়িতে হামলা চালায়। এ সময় তারা বাড়িঘর ভাঙচুর ও লুটপাট করে। এ ঘটনায় মধুখালী থানায় মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন তারা।

অন্যদিকে, জাহাপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক ও সাবেক ইউপি সদস্য আব্দুর রব মোল্যা লুটপাটের অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, রইচ মোল্যারাই আগে আমার লোকজনের ওপর হামলা করেছে। তাদের অস্ত্রের আঘাতে সুহান ও হাসান গুরুতর জখম হয়েছেন। এতে রইচদের বাড়িঘরে সামান্য হামলা চালায়। তবে কেউ লুটপাট করেনি। রইচের স্বজনরাই মালপত্র সরিয়ে নিয়ে গেছে।

মধুখালী থানার ওসি শহিদুল ইসলাম জানান, ঘটনার পর মধুখালী সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার আনিসুজ্জামান লালনকে সঙ্গে নিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। পরিস্থিতি এখন শান্ত আছে। মামলার প্রস্তুতি চলছে।

মন্তব্য করুন