মাদারীপুরে সাবেক নৌপরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান এমপির বাবা ও মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক মৌলভী আসমত আলী খানকে নিয়ে কটূক্তিমূলক বক্তব্য দেওয়ার প্রতিবাদ জানিয়েছেন মুক্তিযোদ্ধারা। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে সম্মিলিত মুক্তিযোদ্ধা সংসদের আয়োজনে মানববন্ধন করে এ প্রতিবাদ জানানো হয়।

জেলা মুক্তিযোদ্ধা ইউনিটের সাবেক কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা শাহজাহান হাওলাদারের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে অংশ নেন জেলার চারটি উপজেলার কয়েকশ মুক্তিযোদ্ধা। এ ছাড়া সামাজিক-রাজনৈতিকসহ বিভিন্ন সংগঠনের সহস্রাধিক মানুষও অংশ নেন।

মানববন্ধনে বক্তারা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সাহাবুদ্দিন আহম্মেদ মোল্লার পদত্যাগের দাবি এবং তাকে নিঃশর্ত ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান করেন। অন্যথায় বৃহত্তর আন্দোলনের ঘোষণা দেন মুক্তিযোদ্ধারা।

মানববন্ধন শেষে জেলা প্রশাসক ড. রহিমা খাতুনের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বরাবর স্মারকলিপি দেন মুক্তিযোদ্ধারা।

একই দাবিতে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে মাদারীপুর-শরীয়তপুর-চাঁদপুর আঞ্চলিক সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেন ছাত্রলীগ ও যুবলীগের একাংশের নেতাকর্মীরা। সড়কে দাঁড়িয়ে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতির পদত্যাগ দাবিতে স্লোগান দেন তারা। এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা মুক্তিযোদ্ধা ইউনিটের সাবেক কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা শাহজাহান হাওলাদার, সদর উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান পাভেলুর রহমান শফিক খান, কেন্দ্রীয় কৃষক লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক সাকিলুর রহমান সোহাগ, জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক সাইফুর রহমান রুবেল খান, জেলা ছাত্রলীগের সহসভাপতি ও শাজাহান খান এমপির বড় ছেলে আসিবুর রহমান খান, জেলা ছাত্রলীগের সহসভাপতি বেলায়েত হোসেন প্রমুখ।

সম্প্রতি মাদারীপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সাহাবুদ্দিন আহম্মেদ মোল্লা রাজৈরে এক অনুষ্ঠানে সাবেক নৌপরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান এমপির বাবা মাদারীপুর আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ও মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক মৌলভী আসমত আলী খানকে নিয়ে কটূক্তিমূলক বক্তব্য দেন। তিনি শাজাহান খানের বাবার বিভিন্ন পদক পাওয়া নিয়ে প্রশ্ন তোলেন। পাশাপাশি মুক্তিযুদ্ধে আসমত আলী খানের ভূমিকা নিয়েও সমালোচনা করেন।

মন্তব্য করুন