চট্টগ্রামের বাঁশখালীতে কথা কাটাকাটি থেকে দু'পক্ষের সংঘর্ষে দুই ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। গত বুধবার বেলা আড়াইটার দিকে শীলকূপ ইউনিয়নের মনছুরিয়া বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত ব্যক্তিরা হলেন মোহাম্মদ আবদুল খালেক (৩০) ও টিপু সুলতান মাহমুদ (২৬)। তারা সম্পর্কে চাচা-ভাতিজা। এ ঘটনায় মামলার পর পুলিশ পাঁচ আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে। তারা হলেন- বাহাদুর (৩২), মনজুর আলম (৪০), রাসেল (২৯), ছিদ্দিক আহমদ (৫২) ও জাকের হোসেন (৩৮)।

এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় পুলিশ নিরপরাধ বাবাকে আটক করেছে বলে অভিযোগ এনে থানায় গিয়ে ডিউটি অফিসারের রুমে বিষপান করেছেন এক তরুণ। তাকে হাসপাতালে ভর্তি করেছে পুলিশ।

জানা গেছে, সংঘর্ষে নিহত ব্যক্তিদের মধ্যে আবদুল খালেক একটি ওষুধ কোম্পানিতে চাকরি করতেন। তার আট ও চার বছর বয়সের দুটি মেয়ে রয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সকালের দিকে পারিবারিক বসতভিটার সীমানা নিয়ে এলাকার দু'পক্ষের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। পরে এ নিয়ে দু'পক্ষের মধ্যে বাড়ির পাশেই মনছুরিয়া বাজার এলাকায় আবার তর্ক হয়। একপর্যায়ে দু'পক্ষ সংঘর্ষে জড়ায়। এতে ঘটনাস্থলেই মারা যান মোহাম্মদ আবদুল খালেক। আহতদের হাসপাতালে নেওয়ার পর মারা যান টিপু সুলতান মাহমুদ। আহত ব্যক্তিরা হলেন- মঞ্জুর আলম (৪০) ও বাহাদুর (৩২) ও কামাল হোসেন (৫০)।

সংঘর্ষের পরপরই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (আনোয়ারা সার্কেল) হুমায়ুন কবীর, বাঁশখালী থানার ওসি কামাল উদ্দিন ও পরিদর্শক (তদন্ত) আজিজুল ইসলাম।

বাঁশখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামাল উদ্দিন বলেন, বাড়ির সীমানা নিয়ে বিরোধের জেরে মারামারির ঘটনায় দু'জনের মৃত্যু হয়েছে। মামলার পর পাঁচ আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অন্য আসামিদেরও গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে।

মন্তব্য করুন