চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জে ঘরে ঢুকে মাকে কুপিয়ে খুন করার অভিযোগ উঠেছে ছেলের বিরুদ্ধে। বুধবার ভোরে ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার পশ্চিম বড়ালী গ্রামে। এ ঘটনার পর স্থানীয়রা অভিযুক্ত মমিন দেওয়ানকে (৪২) আটক করে পুলিশের হাতে তুলে দিয়েছে।\হফরিদগঞ্জ থানার ওসি মো. শহিদ হোসেন জানান, গ্রামের মৃত আবুল হাসেমের ছেলে মমিন দেওয়ান ভোরে তার মা মনোয়ারা বেগমের (৬৫) ঘরে ঢুকে তাকে দা দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করে পালিয়ে যায়। সংবাদ পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে। এ সময় তিনি খুনিকে ধরিয়ে দিতে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ঘাতকের ছবি পোস্ট করেন। পরে ভাটিরগাঁও এলাকা থেকে লোকজন তাকে আটক করে। তিনি আরও বলেন, ঘাতক মমিন একটি হত্যা মামলার আসামি। তিন মাস আগে ওই মামলায় সে জামিন পেয়ে জেল থেকে বেরিয়ে আসে।\হস্থানীয়রা জানায়, এক সন্তানের জনক মমিন মানসিকভাবে কিছুটা বিকারগ্রস্ত। সে প্রায়ই লোকজনকে মেরে ফেলার হুমকি দিত।\হমমিন দেওয়ানের ভাগ্নে আশিক জানায়, তার নানি মনোয়ারা বেগম ও পরিবারের লোকজনকে প্রায়ই তার মামা হত্যা করার হুমকি দিত।\হএদিকে, টাঙ্গাইলের কালিহাতীর এলেঙ্গা পৌর এলাকা থেকে সুমাইয়া নামের নবম শ্রেণির এক ছাত্রীর গলাকাটা মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। একই স্থান থেকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় মনির নামের এক কিশোরকে (১৭) উদ্ধার করে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। বুধবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে কলেজ রোড এলাকার খোকন নামের এক ব্যক্তির বাড়ির সিঁড়ি থেকে সুমাইয়ার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

কালিহাতী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোল্লা আজিজুর রহমান জানান, এলেঙ্গা পৌরসভার শামসুল হক কলেজের সামনে এ ঘটনা ঘটে। সকালে স্থানীয়রা ঘটনাস্থলে গলা কাটা এক কিশোরী ও এক কিশোরকে পড়ে থাকতে দেখে পুলিশে খবর দেয়। পরে ঘটনাস্থল থেকে কিশোরীর মরদেহ উদ্ধার করে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়। সে সময় ওই কিশোর জীবিত ছিল। পরে তাকে উদ্ধার করে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তিনি আরও বলেন, নিহত কিশোরীর নাম সুমাইয়া আক্তার (১৫)। সে উপজেলার পালিমা এলাকার ফেরদৌস রহমানে মেয়ে ও এলেঙ্গা উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী। তবে কী কারণে এ ঘটনা ঘটেছে, তা জানাতে পারেননি ওসি মোল্লা আজিজুর রহমান। আহত মনির (১৭) উপজেলার ভাবলা গ্রামের মেহেরের ছেলে। সে পরিবহন শ্রমিক হিসেবে কাজ করত বলে জানা গেছে।

টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার ডা. রাজিব পাল জানান, মনিরের শরীরের বিভিন্ন স্থানে ক্ষত আছে। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে।

মন্তব্য করুন